শিরোনাম :
স্বাস্থ্যবিধি না মানলে প্রয়োজনে কারাদন্ড দেয়া হবে-জেলা প্রশাসক চকরিয়ায় অবৈধ বসতি গুঁড়িয়ে দিয়ে এক একর সংরক্ষিত বনভূমি উদ্ধার কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদে কারের ধাক্কায় টমটম চালক নিহত পেকুয়ায় রাতে নির্মিত ৩টি অবৈধ স্থাপনা দিনে উচ্ছেদ লকডাউন আর না, সচেতন হোন-সিনিয়র সচিব মো. হেলালুদ্দিন পেকুয়ায় মাস্ক ব্যবহার না করায় ৯ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা কভিড-১৯ প্রণোদনা নিয়ে কক্সবাজারে ব্যাংক কর্মকর্তাদের সাথে সংলাপ শিশু ধর্ষণের দায়ে কুতুবদিয়ার এক ব্যক্তি যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা অর্থদন্ড দাবি আদায়ে কর্মবিরতিতে কক্সবাজারের স্বাস্থ্য সহকারীরা করোনা প্রতিরোধে কক্সবাজারে ফ্রেন্ডশিপয়ের ‘সারি’ আইসোলেশন ও চিকিৎসা কেন্দ্র চালু
শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

নতুন আইন আদতে কার্যকর হয়নি : ইলিয়াস কাঞ্চন

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: অক্টোবর ২১, ২০২০ ১:২৯ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: অক্টোবর ২১, ২০২০ ১:২৯ অপরাহ্ণ

[ad_1]

ঢাকা, ২২ অক্টোবর- দুই যুগের বেশি সময় ধরে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করে যাচ্ছেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। তিনি চেষ্টা করছেন, সড়ক নিরাপদ করতে। একপর্যায়ে গড়ে তোলেন নিরাপদ সড়ক চাই নামের একটি সংগঠন। তার স্ত্রী জাহানারা কাঞ্চনের মৃত্যু দিবসকে কেন্দ্র করে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। এখন জাতীয়ভাবে দিবসটি উদযাপিত হচ্ছে। এ নিয়ে সংগঠনটির চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, এত বছরেও কাঙ্খিত অর্জন হয়নি। নতুন আইন গত বছরের নভেম্বর থেকে কার্যকরের গেজেট প্রকাশ করে সরকার। কিন্তু আদতে কার্যকর হয়নি। কারণ পরিবহন নেতাদের আপত্তি। চালকসহ সাধারণ মালিকরা আইনটি মানতে চাইলেও পরিবহন নেতারা এর বিরোধিতা করেন। আন্দোলন করেন।

ইতোমধ্যে তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে নানা রকম মন্তব্য করেছেন, আলটিমেটাম দিয়েছেন। আসলে নৈরাজ্য ঠেকানো আমাদের কাজ, তাদের কাজ নৈরাজ্য জিইয়ে রাখা। আমরা ১১১টি সুপারিশ করেছি। সেগুলো মানলে এবং পরিবহন আইনটি কার্যকর হলে সড়কে শৃঙ্খলা আসবে।

ইলিয়াস কাঞ্চন আরও বলেন, পরিবহন নেতা শাজাহান খান আমার ইমেজ ক্ষুণ করে বক্তব্য দিয়েছেন। আমি আমার ছেলেসহ সবাই নাকি সংগঠনের নামে কোটি কোটি টাকা কামিয়েছি। এ জন্য আইনের আশ্রয় নিয়ে জানতে চেয়েছি, কোথা থেকে এ টাকা এনেছি তা তুলে ধরতে। তারা এর জবাব না দিয়ে এখন বলছে, আমি মামলা করায় যে মঞ্চে যাব সেখানে তারা থাকবে না। এমনকি এ দিবস না মানারও হুমকি দিয়েছেন। তাদের দরকার প্রমাণ করা কীভাবে টাকা এনেছি। তা না করে হুমকি দিচ্ছে। শুনলাম তারা এনজিও ব্যুরোসহ বিভিন্ন দপ্তরে যাচ্ছে রেজিস্ট্রেশন বাতিল করতে। আমি বলি, ২০১৬ সালের ডিসেম্বরের আগে রেজিস্ট্রেশনও ছিল না। জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংগঠনের কিছু কর্মসূচির স্বার্থে রেজিস্ট্রেশন করেছি। এ সংগঠন নিজেদের টাকা দিয়ে চলছে ১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে।

আরও পড়ুন: সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

নিরাপদ সড়ক চাইয়ের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, পরিবহন সেক্টরে যারা নেতৃত্ব দিচ্ছেন তারা আইনের বিরোধিতা করেন। এখন মহাসড়কে চার লেন ও ডিভাইডার, হাইওয়ে পুলিশ সবই আন্দোলনের ফসল। এক দিনে সব হয় না। দিবসকে কেন্দ্র করে ব্যাপক প্রচার চলে। সেটি ভালো দিক। মানুষ উপকৃত হচ্ছে। চালকদের আমরা প্রশিক্ষণ দিই, এটা তাদের কাজ। করোনায় তারা শ্রমিকদের পাশে ছিল না; আমরা ভূমিকা রেখেছি।

সূত্র: আমাদের সময়
এম এন / ২২ অক্টোবর



[ad_2]

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::