শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:১১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

দোকান মালিক সমিতির সভাপতির উপর মাদকাসক্ত শাহীনের হামলা

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: রবিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক::

শহরের বিলকিস শপিং কমপ্লেক্স দোকান মালিক সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতির উপর মাদকাসক্ত শাহীনের হামলার অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয়, দোকান মালিক সমিতির ওই সভাপতিকে অপহরণ করে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোনও ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ শাহীনের বিরুদ্ধে।

এঘটনায় ভুক্তভোগী বিলকিস শপিং কমপ্লেক্স দোকান মালিক সমবায় সমিতির সভাপতি হাজী মোঃ মনজুরুল আলম বাদী হয়ে শাহীনকে প্রধান আসামী করে গত ২৫/০৩/২০২২ইং তারিখ সদর মডেল থানায় এজাহার দায়ের করেছেন। ওই এজাহার সূত্রে জানা যায়, শহরের টেকপাড়াস্থ হাঙ্গর পাড়ার মোঃ ইউসুফের পুত্র শাহীনুল ইসলাম শাহীন কয়েক বছর পূর্বে বিলকিস শপিং কমপ্লেক্সে একটি মোবাইলের দোকান ভাড়া নিয়েছিল। সেই সুবাদে তিনি ব্যবসায়ী সমিতির প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্বরত ছিল।

উক্ত এজাহারে বাদী হাজী মোঃ মনজুরুল আলম অভিযোগ করেন-দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে সন্ত্রাসী, মাস্তান প্রকৃতির লোক ও মাদকাসক্ত হিসেবে সমিতির গঠনতন্ত্র লংগন, জোরপূর্বক ক্ষমতা দখল করে আসছিল শাহীন। তাছাড়া দায়িত্বপালনকালে অনেক অনিয়ম ও দুর্নীতির আশ্রয়ে সমিতির লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারনামূলক ভাবে আত্মসাৎও করেছে। এসবের প্রতিবাদ করতে গিয়ে তার হাতে মারধরসহ নানা ভাবে হেনস্থার শিকার হয়েছিল অনেকে। উক্ত মার্কেটে শাহীনের দোকান ও ভাড়াটিয়া মালিকানা না থাকায় সম্প্রতি সদস্য পদ বিলুপ্ত হয়ে গেলে সমিতির গঠনতন্ত্র মোতাবেক মূল ভাড়াটিয়া ও উপ-ভাড়াটিয়ার সমন্বয়ে একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এজাহারে বাদী মনজুরুল আলম আরো অভিযোগ করেন-তিনি মূল ভাড়াটিয়া কমিটির সভাপতি হওয়ায় তাকে এই পদ ছেড়ে দেয়ার জন্য শাহীনুল ইসলাম শাহীন ক্ষিপ্ত হয়ে নানা ভাবে হুমকি প্রদান করে। এরই অংশ হিসেবে গত ২৪/০৩/২০২২ইং তারিখ রাত অনুমান ১০টার দিকে শাহীনের নেতৃত্বে ৪/৫ জনের একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী বিলকিস মার্কেটের নিচ তলায় মনজুরুল আলমের দোকানে গিয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে জখম করে। পরে মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে মনজুরুল আলমকে মার্কেটের সামনে সন্ত্রাসীদের ভাড়া করা টমটমে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় মনজরুল আলমের চিৎকারে বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী ও সেলস্ম্যান এগিয়ে আসলে শাহীন মনজুরুলের বুকে ছোরা ঠেকিয়ে পাঞ্জাবীর পকেটে থাকা নগদ ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ও হাতে থাকা ২৫ হাজার টাকা মূল্যের একটি মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে মার্কেট ও রাস্তার লোকজনের বাধার মুখে সন্ত্রাসীরা মনজুরুলকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। এদিকে থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বাদী মনজুরুল আলম অভিযোগ করেন-শাহীন বর্তমানে বিলকিস মার্কেট হোটেলের ৪র্থ তলার ৩০১নং কক্ষ মাসিক ভাড়া নিয়ে নিয়মিত ইয়াবাসহ হরেক রকম মাদক গ্রহণ করে থাকে। তাছাড়া একাধিক মামলার আসামীও। মামলা নং-১০৯০/২০১৮ইং (সদর) ও কক্সবাজার সদর মডেল থানা মামলা নং-৭২, তাং-২৩/১২/২০১৮ইং। বিলকিস মার্কেটের ব্যবসায়ী মোর্শেদ হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন-আমাদের দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মনজুরুল আলমকে শাহীনের নেতৃত্বে মারধর করে অপহরণ করার চেষ্টা করা হয়েছিল। যদি আমরা ব্যবসায়ীরা প্রতিরোধ গড়ে না তুলতাম তাহলে মনজুরুলের অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যেত। একই মার্কেটের আরেক ব্যবসায়ী আবদুল আজিজ জানান-শাহীন ও আলমগীরের নেতৃত্বে যে কমিটি ছিল তারা মেয়াদের পরও দীর্ঘসময় ক্ষমতা দখল করে থাকে। এতে করে তারা নানা ধরণের দুর্নীতি ও অনিয়মের সাথে জড়িয়ে পড়ে। কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ সেলিম উদ্দিন বলেন-বিলকিস মার্কেটের দোকান মালিক সভাপতিকে মারধর ও হেনস্থা করার অভিযোগে একটি এজাহার পেয়েছি। তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি এজাহার পাওয়ার পর পরেই মার্কেটে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি এখনো তদন্তাধীন রয়েছে। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো খবর: