শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

দুই শিশুর মৃত্যু: মিষ্টি নিয়ে আসা সেই প্রেমিক গেল কই

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাপুরে ‘নাপা সিরাপ খেয়ে’ দুই শিশুর মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না স্বজনরা। ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় শিশুদের মৃত্যুর অভিযোগ ওঠার পর তদন্তে নামে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর। তবে শুরু থেকেই তদন্ত কমিটির কাছে বিষয়টি রহস্যজনক মনে হয়েছিল। অবশেষে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। দুই সন্তানকে বিষপানে হত্যার অভিযোগ ওঠে মা রিমা বেগম ওরফে লিমার বিরুদ্ধে।
পুলিশের দাবি, পরকীয়া প্রেমের জেরে প্রেমিক সফিউল্লার দেওয়া বিষ মাখানো মিষ্টি খাইয়ে দুই সন্তানকে হত্যা করেন লিমা। পুলিশের অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদে পরকীয়া প্রেম ও হত্যকাণ্ডের দায় স্বীকার করেছেন লিমা।

পরকীয়া প্রেমের জন্য মা নিজের দুই সন্তানকে বিষ খাইয়ে হত্যার ঘটনায় হতবাক দুর্গাপুর গ্রামের বাসিন্দারা । এ ঘটনায় লিমা ও তার প্রেমিক সফিউল্লার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা। ঘটনার পর এলাকা থেকে স্বাভাবিক কাজকর্ম চালিয়ে গেলেও গত তিনদিন ধরে পলাতক রয়েছেন সফিউল্লা। তাকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মোল্লা মোহাম্মদ শাহীন বলেন, দুই শিশু হত্যার ঘটনায় করা মামলাটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। অভিযুক্ত সফিউল্লাকে গ্রেফতারে মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এ ঘটনায় নিহত দুই শিশুর বাবা ইসমাঈল হোসেন ওরফে সুজন খানের করা মামলায় লিমাকে বুধবার রাতে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন তিনি। তবে লিমার প্রেমিক সফিউল্লা পলাতক রয়েছেন। তিনি আগে থেকেই বিবাহিত।


আরো খবর: