শিরোনাম :
পেকুয়ায় নিষিদ্ধ পলিথিন বিক্রির দায়ে ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা মাতামুহুরী নদীর রাবারড্যাম পয়েন্টে মাছধরার নৌকা ডুবি: জেলে নিখোঁজ ঈদগাঁও এখন কক্সবাজারের ৯ম থানা কক্সবাজার শহরের যেসব এলাকায় বৃহস্পতিবার বিদ্যুৎ সরবরাহ থাকবেনা উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত কলেজ ছাত্রের নামাজের জানাজা সম্পন্ন বিজিবির অভিযানে বহু মামলার আসামী আশিক্ব্যা ইয়াবাসহ আটক কুতুবদিয়াকে হতাশায় ডুবিয়ে ফাইনালে সদর উপজেলা মুজিব শতবর্ষে চকরিয়ায় ভূমিহীন ১৮০টি পরিবার খাসজমিতে পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার নতুন ঘর দেশ নাটকের ইশরাত নিশাতকে স্মরণ ‌‘প্যাট্রিয়ট পার্টি’ রাজনৈতিক দল গঠন করছেন ট্রাম্প
বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:১১ পূর্বাহ্ন

দুই একদিনের মধ্যেই তাসফিয়া হত্যার কিনারা হবে, পুলিশ

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ৪, ২০১৮ ৬:২৮ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ৪, ২০১৮ ৬:৩২ পূর্বাহ্ণ

সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণের মধ্যদিয়ে চট্টগ্রামে নিহত স্কুলছাত্রী তাসফিয়া হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। দুই একদিনের মধ্যেই হত্যায় দায়ীদের চিহ্নিত করা যাবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।খবর সময়

নগরীর গোলপাহাড় মোড় থেকে শুরু করে জিইসি মোড় পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে থাকা সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হচ্ছে। পাশাপাশি নিহত তাসফিয়া এবং তার বন্ধু আদনানকে বহনকারী আলাদা দুটি সিএনজি অটোরিকশা শনাক্তের চেষ্টা চলছে। একমাস আগে, তাসফিয়া আমিনের সঙ্গে ফেসবুকে আদনান নামে এক ছেলের পরিচয় হয়।

মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর গোলপাহাড় এলাকার একটি রেস্টুরেন্টে তারা একসঙ্গে খেতে যায়। এরপর থেকেই মেয়েটির আর কোন খোঁজ পায়নি পরিবার।

সিএমপি পতেঙ্গা কর্ণফুলী জোনের সহকারী কমিশনার মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘এটি একটি স্পর্শকাতর ঘটনা। সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আমরা বিষয়টি দেখছি। প্রত্যেকটা খুঁটিনাটি বিষয় আমরা তদন্ত করছি। আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করছি। আশা করছি, দুই তিন দিনের মধ্যে একটা উপসংহারে পৌঁছতে পারবো।’

সবশেষ বুধবার দুপুরে পতেঙ্গা এলাকা থেকে তাসফিয়া আমিনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পরিবার ৬ জনকে আসামি করে নিহতের বাবা একটি মামলা করেন। পরে আদালতের নির্দেশে আদনানকে কারাগারে পাঠানো হয়।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::