শিরোনাম :
শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৩৮ অপরাহ্ন

টেকনাফে বিজিবি’র অভিযানে ৩০ লাখ টাকার ইয়াবা উদ্ধার

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ৩, ২০১৮ ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ৩, ২০১৮ ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ

কক্সবাজারের টেকনাফ ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ টেকনাফ বিওপির হাবিলদার মোঃ আশরাফুল আলম এর নেতৃত্বে একটি টহলদল টেকনাফ জেটিঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৯,৯০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। গত ২ মে রাত সাড়ে ১১টায় এ অভিযান চালানো হয়। এঘটনায় ২ পাচারকারীকে পলাতক দেখিয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে বিজিবি।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে, টেকনাফ জেটিঘাট হতে ২০০ গজ দক্ষিণে বেড়ীবাধ এলাকা দিয়ে ইয়াবার একটি চালান মায়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে খবরের ভিক্তিতে বিজিবি টহলদল দ্রুত জেটিঘাট এলাকায় পৌছেন। বেড়ীবাধের একপার্শ্বে অবস্থান নিয়ে ওঁৎ পেতে থাকে। আকস্মিক বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই ইয়াবা ব্যবসায়িরা দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে টহলদল তাদের পিছু ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে ইয়াবা পাচারকারীরা তাদের সাথে থাকা ব্যাগটি ফেলে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে পার্শ্ববর্তী চৌধুরীপাড়া গ্রামের ভেতর পালিয়ে যায়।

বিজিবি জানায়, পালিয়ে যাওয়ার সময় চৌধুরীপাড়া গ্রামের লোকজন পলাতক আসামীদের নাম ও ঠিকানা প্রকাশ করে। পরবর্তীতে টহলদল ইয়াবা পাচারকারী কর্তৃক ফেলে যাওয়া ব্যাগটি খুলে গণনা করে ৯,৯০০ (নয় হাজার নয়শত) পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। যার মুল্য ঊনত্রিশ লক্ষ সত্তর হাজার টাকা ।পলাতক আসামীরা হলেন, টেকনাফ চৌধুরীপাড়ার মৃত আকবর হোসেনের ছেলে রুহুল আমিন (৪৫) প্রকাশ ইয়াবা রুহুইল্লা, মোঃ নুরুল হকের ছেলে বাবুল আলম (৩৫)। নিষিদ্ধ ঘোষিত মাদক ইয়াবা ট্যাবলেট বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে নিজ দখলে রাখার অপরাধে এদেরকে পলাতক আসামী করে টেকনাফ মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। জব্দকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::