শিরোনাম ::
সামাজিক সংহতি ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত উখিয়ার রাজা পালং মাদ্রসা দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে নানা অভিযোগ, তদন্ত কমিটি গঠিত মুক্তি কক্সবাজারের উদ্যোগে উখিয়ায় নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত ফ্রেন্ডশিপের প্রশিক্ষণে চ্যাম্পিয়ন ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ফুটবল টিমকে সংবর্ধনা উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৩০ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

টেকনাফে দেশীয় অস্ত্রসহ ৬ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীসহ গ্রেপ্তার

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শুক্রবার, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

কক্সবাজারের টেকনাফ থানা ও আর্মড পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

এ সময় রামদাসহ ৭টি দেশীয় অস্ত্র জব্দ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভোররাতে সাবরাং ইউনিয়নের ডেইলপাড়া ও ২৭ নম্বর জাদিমুড়া শিবিরে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক এসপি তারিকুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় একদল দুর্বৃত্ত জাদিমুড়া রোহিঙ্গা শিবিরের সি ব্লকে ১০-১৫ জনের একটি দল ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

এমন সংবাদের ভিত্তিতে জাদিমুড়া এপিবিএন ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বেশ কিছু রোহিঙ্গা পালিয়ে যায়।

এ সময় একই শিবিরের মোস্তফা কামাল (২৪), মোহাম্মদ তাহের (২৬), মো. কামাল হোসেন (২৩) নামের তিন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় তাদের কাছে থাকা বিভিন্ন আকৃতির তিনটি রামদা জব্দ করা হয়। অপর ১২-১৩ জন অজ্ঞাতনামা ডাকাত পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায় ৷

গ্রেপ্তার হওয়া ১ ও ২ নম্বর রোহিঙ্গা টেকনাফ থানার নিয়মিত মামলার এজাহারনামীয় আসামি এবং ২ ও ৩ নম্বর রোহিঙ্গা পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী।

অপরদিকে টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি হাফিজুর রহমান জানান ভোররাতে সাবরাং ইউনিয়নের ডেইলপাড়া এলাকা কিছু লোক অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঘোরাফেরা করছিল।

এমন সংবাদ পেয়ে উপপরিদর্শক রাফীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়।

এ সময় ৪টি রামদাসহ স্থানীয় মো. আব্দুল্লাহ (৩৪), মো. ইউনুছ (৫৭) ও রামু এলাকার মো. ইমরানসহ (২৩) মোট তিনজনকে আটক করে।

ওসি হাফিজুর রহমান জানান, তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরো খবর: