তারিখ: মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share:

টেকনাফ ২ বিজিবি সদস্যরা অভিযান চালিয়ে নিজ শরীরের ভিতরে অভিনব কায়দায় ইয়াবা পাচার করার সময় ৩ রোহিঙ্গা নারীকে আটক করল বিজিবি। এরপর বিজিবি সদস্যরা তিন নারীর পেট এক্সরে করে ৩ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে।

২১মে বিকাল ৩টায় টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান (পিএসসি) অভিযানের বর্ণনা করেন। এসময় উপ অধিনায়ক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দারও উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়,গত ২০মে রাত ৮টারদিকে টেকনাফ ২বিজিবি হোয়াইক্যং বিওপির চেকপোস্টের নায়েব সুবেদার সাদেক আলীর নেতৃত্বে বিজিবি সদস্যরা গোপন সংবাদ পেয়ে কক্সবাজারগামী পালকি সার্ভিসের একটি বাস তল্লাশী করে ইয়াবা পাচারে জড়িত থাকার সন্দেহ করে হ্নীলা আলীখালীর জাফর আহমদের স্ত্রী নুর হাওয়া (৩৫), মৃত মোহাম্মদ সিদ্দিকের স্ত্রী জরিনা খাতুন (৩৫) এবং উত্তর আলীখালীর জুবাইর হোসেনের স্ত্রী সেতেরা (৩০) কে আটক করা হয়।

তারা ইয়াবা পাচারের ঘটনা অস্বীকার করে। তারপর তাদের তিনজনকে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে এক্সরে করার পর তাদের পেটের ভিতর ইয়াবার সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর ঔষুধ প্রয়োগ করে তিন রোহিঙ্গা নারীর পেট থেকে ৩ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

বিজিবি দাবী উদ্ধারকৃত ইয়াবা গুলোর মূল্য ৯ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা। ইয়াবাসহ আটক তিন রোহিঙ্গা নারীর বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা রুজু করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::