বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন

টেকনাফের লেদায় ১২০ শয্যার আইসোলেশন সেন্টার চালু

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: জুন ২৮, ২০২০ ১:১৭ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: জুন ২৮, ২০২০ ১:১৭ পূর্বাহ্ণ

হেলাল উদ্দিন,টেকনাফ::

আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা আইওএম এর অর্থায়নে
টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের লেদায় করোনা রোগিদের সুবিধার্থে চালু হয়েছে ১২০ শয্যার আইসোলেশন এবং চিকিৎসা সেন্টার। এই আইসোলেশনে রোহিঙ্গা এবং স্থানীয় লোকজন কভিট-১৯ সন্দেহভাজন বা কভিট-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন।

এই আইসোলেশন সেন্টারে দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীরা দিবারাত্রি ২৪ ঘন্টা চিকিৎসা সেবা দেবে। রোগীদের জন্য রয়েছে অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা। নারী এবং পুরুষের জন্য আলাদা ওয়ার্ড, সন্দেহভাজন এবং আক্রান্ত ব্যক্তির জন্য পৃথক ওয়ার্ড, খাবার এবং ওষুধ সরবরাহের ব্যবস্থা। করোনা আক্রান্ত প্রসূতি মায়েদের জন্য বিশেষ সেবা ও ২৪ঘন্টা অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস। এ ছাড়াও সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে ডাব্লিউএইচও নির্দেশনা অনুযায়ী জীবাণু মুক্ত করণ এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনা।

আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা আইওএম এর অর্থায়নে শনিবার ২৭ জুন বেলা ২ ঘটিকায় আইসোলেশন সেন্টারের উদ্বোধন করেন হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি রাশেদ মাহমুদ আলী।

ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী বলেন, মহামারী করোনা ভাইরাসে প্রতিদিন আক্রান্ত হচ্ছে স্থানীয়রা। বাদ যাচ্ছেনা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। সবাই ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, যারা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে তাদের নিরাপত্তার জন্য আইসোলেশন সেন্টার গড়ে তোলা দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। আইওএম সেটি গুরুত্ব দিয়েছেন।

এই আইসোলেশন সেন্টারে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয় লোকজনও চিকিৎসাসেবা নিতে পারবে।

এসময় আইওএম এর প্রতিনিধিরাসহ স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::