শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:০৬ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

টেকনাফের বিভিন্ন এলাকা থেকে ক্যাম্পের ৫০ রোহিঙ্গাকে আটক

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল, ২০২২

হেলাল উদ্দিন টেকনাফ::

নিজ নিজ ক্যাম্প ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাফেরা, যানবাহনের চালক ও শ্রমিক হিসেবে কাজ করার সময় কক্সবাজারের টেকনাফে বিভিন্ন বয়সী ৫০ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল সোমবার বিকেল ৪টা থেকে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টা পর্যন্ত টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা, টেকনাফ পৌরসভা ও সাবরাংয়ের বিভিন্ন জায়গা থেকে তাঁদের আটক করা হয়। টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, রোহিঙ্গা শিবির থেকে অকারণে বাইরে আসার সুযোগ নেই রোহিঙ্গাদের। তাঁদের নিরাপত্তার জন্য শিবির এলাকাজুড়ে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করা হয়েছে। এর মধ্যেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অবাধে ঘোরাফেরা বা বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের চালক ও শ্রমিক হিসেবে কাজ করছিলেন এমন ৫০ রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা রোহিঙ্গা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোজাম্মেল হক বলেন, শিবির ছেড়ে এসে বাইরে কাজ করার কোনো ধরনের বৈধতা নেই রোহিঙ্গাদের। কারণ, তাঁরা প্রতি সপ্তাহে খাদ্যসামগ্রী পাচ্ছেন। ক্যাম্পের বাইরে এসে কাজ করলে স্থানীয়দের শ্রমবাজারের জন্য হুমকি তৈরি হবে। বর্তমানে রোহিঙ্গারা স্থানীয় বাসিন্দাদের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

মোজাম্মেল হক বলেন, ‘ক্যাম্পের বাইরে যাওয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও রোহিঙ্গা শরণার্থীরা সেটা মানছেন না। রোহিঙ্গা শিবিরে এত নিরাপত্তা জোরদার করার পরও তাঁরা কীভাবে ক্যাম্প ছেড়ে বাইরে আসছেন? অথচ স্থানীয় লোকজন অনুমতি ছাড়া ক্যাম্পের ভেতরে ঢুকতে পারেন না। রোহিঙ্গারা যাতে ক্যাম্প থেকে বাইরে যেতে না পারে, সে জন্য সংশ্লিষ্ট রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত এপিবিএন পুলিশ কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।’

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান বলেন, শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের কার্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে আটক করা এসব রোহিঙ্গাদের নিজ নিজ ক্যাম্পে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।


আরো খবর: