শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৩৯ অপরাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

জুতা ব্যবসায়ীর ঘরে ইয়াবার গুদাম, পাচার করেন জেলায় জেলায়

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: শনিবার, ৫ মার্চ, ২০২২

চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানার ঘাটফরহাদবেগ এলাকার মো. জাকির হোসেন করেন জুতার ব্যবসা। নগরীর নূপুর মার্কেটে ‘দিয়া সু স্টোর’ নামে তার একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানও রয়েছে। তিনি চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবান ও ফেনী জেলা ছাড়াও বিভিন্ন জায়গায় জুতা বিক্রি করে থাকেন।

কিন্তু জুতা ব্যবসার আড়ালে জাকিরের আসল কাজ ইয়াবাপাচার। এভাবে জুতার সঙ্গে ইয়াবাপাচার করে বিপুল অর্থের মালিক হয়ে যান তিনি। এমনকি বেশি লাভের আশায় মিয়ানমার থেকে ইয়াবা এনে মজুদ করে রাখতেন নিজের ঘরে।

অবশেষে ৩ লাখ পিস ইয়াবাসহ জাকির হোসেন ধরা পড়েছেন র‌্যাব-৭ এর জালে। দীর্ঘদিন ধরে তাকে নজরদারিতে রেখেছিল র‌্যাব। শনিবার (৫ মার্চ) দুপুর দেড়টায় জাকিরের বাসায় অভিযান চালিয়ে খাটের নিচে ট্রলি ব্যাগে লুকানো অবস্থায় ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে আটক করা হয়।

আটক মো. জাকির হোসেন (৫০) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর থানার মৃত আব্দুল সালামের ছেলে।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে জাকির নামের এক ব্যক্তির বাসার খাটের নিচে ট্রলিতে লুকানো ৩ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জাকির জুতা বিক্রির নামে দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা করে আসছেন বলে স্বীকার করেন। জুতা ব্যবসার আড়ালে জাকির চট্টগ্রাম, বান্দরবান, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও ফেনী জেলার বিভিন্ন জায়গায় জুতা বিক্রয়ের নামে এসব মাদক পাচার করতেন।

অবশেষে ৩ লাখ পিস ইয়াবাসহ জাকির হোসেন ধরা পড়েছেন র‌্যাব-৭ এর জালে। দীর্ঘদিন ধরে তাকে নজরদারিতে রেখেছিল র‌্যাব। শনিবার (৫ মার্চ) দুপুর দেড়টায় জাকিরের বাসায় অভিযান চালিয়ে খাটের নিচে ট্রলি ব্যাগে লুকানো অবস্থায় ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে আটক করা হয়।

আটক মো. জাকির হোসেন (৫০) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর থানার মৃত আব্দুল সালামের ছেলে।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে জাকির নামের এক ব্যক্তির বাসার খাটের নিচে ট্রলিতে লুকানো ৩ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জাকির জুতা বিক্রির নামে দীর্ঘদিন ধরে ইয়াবা ব্যবসা করে আসছেন বলে স্বীকার করেন। জুতা ব্যবসার আড়ালে জাকির চট্টগ্রাম, বান্দরবান, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও ফেনী জেলার বিভিন্ন জায়গায় জুতা বিক্রয়ের নামে এসব মাদক পাচার করতেন।

এদিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার (৪ মার্চ) মিয়ানমার সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদক সিন্ডিকেটের মূলহোতা তারেক নামের এক মাদককারবারির বাড়িতে অভিযানে চালিয়ে বাড়ির আঙিনার গর্তের ভেতর থাকা প্লাস্টিকের ব্যাগ মোড়ানো ২ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে র‌্যাব-৭।

এ সময় উখিয়া থানার পূর্ব ফারির বিলের মৃত ছৈয়দ নূরের ছেলে মো. হেলাল উদ্দিন (২৭), একই এলাকার আবুল বাশারের ছেলে মো. তারেক (২৩) ও মৃত আব্দুস সালামের ছেলে নুরুল আমিনকে (১৯) আটক করে র‌্যাব।

এছাড়া আটক চার মাদককারবারির কাছ থেকে উদ্ধার করা ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ১৫ কোটি টাকা বলে জানিয়েছে র‌্যাব।


আরো খবর: