শিরোনাম :
স্বাস্থ্যবিধি না মানলে প্রয়োজনে কারাদন্ড দেয়া হবে-জেলা প্রশাসক চকরিয়ায় অবৈধ বসতি গুঁড়িয়ে দিয়ে এক একর সংরক্ষিত বনভূমি উদ্ধার কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদে কারের ধাক্কায় টমটম চালক নিহত পেকুয়ায় রাতে নির্মিত ৩টি অবৈধ স্থাপনা দিনে উচ্ছেদ লকডাউন আর না, সচেতন হোন-সিনিয়র সচিব মো. হেলালুদ্দিন পেকুয়ায় মাস্ক ব্যবহার না করায় ৯ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা কভিড-১৯ প্রণোদনা নিয়ে কক্সবাজারে ব্যাংক কর্মকর্তাদের সাথে সংলাপ শিশু ধর্ষণের দায়ে কুতুবদিয়ার এক ব্যক্তি যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা অর্থদন্ড দাবি আদায়ে কর্মবিরতিতে কক্সবাজারের স্বাস্থ্য সহকারীরা করোনা প্রতিরোধে কক্সবাজারে ফ্রেন্ডশিপয়ের ‘সারি’ আইসোলেশন ও চিকিৎসা কেন্দ্র চালু
শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১১:২১ পূর্বাহ্ন

জীবিত গরুর নাড়ি-ভূড়ি বের করে খেল কিশোর!

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: নভেম্বর ৯, ২০২০ ১২:৪৬ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: নভেম্বর ৯, ২০২০ ১২:৪৬ অপরাহ্ণ

[ad_1]

জীবিত গরুর নাড়ি-ভূড়ি বের করে খেল কিশোর!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, ৯ নভেম্বর- সাধারণত কোনো জীবজন্তু যেটা করে সেটাই করলো এক কিশোর (১৮)। মাঠে চড়ানো গরুর নাড়ি-ভূড়ি, কলিজা খাওয়ার মতো আজবকাণ্ড ঘটিয়েছে সে। স্থানীয় লোকজন কিশোরটিকে মানসিক রোগী বলে আখ্যায়িত করেছেন। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

এ ঘটনা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায়। সোমবার দুপুরে পৌর এলাকার তারাগনে এ ঘটনা ঘটে। কিশোরের বাবা ক্ষতিগ্রস্ত গরুর মালিককে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। তবে অন্য গরুর মালিকরা এমন ঘটনায় আতঙ্কের মধ্যে আছেন।

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তারাগন পশ্চিমপাড়ার মো. আবু তাহের মিয়া সোমবার সকালে বাড়ির পাশেই খোলা মাঠে নিজের গরু চড়াতে দেন। দুপুরে গিয়ে দেখেন গরুটি রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। একই সঙ্গে পিছন দিক নিয়ে গরুর নাড়ি-ভূড়ি বের হয়ে আছে। এর পাশেই ছিলেন এক কিশোর। গরুর মালিককে দেখে ওই কিশোর পালিয়ে যায়। পরে তাকে ধরে আনলে গরুর পা বেঁধে পিছন দিক দিয়ে কেটে নাড়ি-ভূড়িসহ ভেতর থেকে বিভিন্ন কিছু বের করে খায় বলে স্বীকার করে। এরই মধ্যে শতশত লোক জড়ো হয়ে যায়।

আবু তাহের মিয়া জানান, কিছুদিন পূর্বে প্রায় ৫০ হাজার টাকায় তিনি গরুটি কেনেন। সোমবার দুপুরে বাড়ির পাশে ঘাস খাওয়ার সময় এলাকারই এক কিশোর এ ঘটনা ঘটায়। প্রথমে বিষয়টি বিশ্বাসই হয়নি। পরে তাকে ধরে আনলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। তবে কি কারণে সে এমন করলো এ বিষয়ে কোনো কথা বলে না।

তারাগন গ্রামের আলম মিয়া নামে এক ব্যক্তি বলেন, ‘মানুষকে কত ধরণের খাবার খেতে দেখেছি। কিন্ত এভাবে তাজা গরুর নাড়ি-ভূড়ি খেতে দেখিনি। নিজের গরু নিয়ে এখন দুশ্চিন্তায় আছি।

আখাউড়া পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. মানিক মিয়া বলেন, ‘এটি অবশ্যই একটি দুঃখজনক ঘটনা। ধারণা করা হচ্ছে, ওই ছেলেটি মানসিক সমস্যা রয়েছে। নইলে সে এমন করতে পারে না। ওই ছেলের পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে।’

আখাউড়া উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা মো. কামাল বাশার সাংবাদিকদেরকে জানান, ঘটনাটি শুনে দ্রুত খোঁজখবর নিতে লোক পাঠানো হয়। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে কিশোর মানসিক রোগী। তাকে চিকিৎসা দেওয়া প্রয়োজন।

সূত্র: কালের কণ্ঠ

আর/০৮:১৪/৯ নভেম্বর

[ad_2]

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::