শিরোনাম :
৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ উখিয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নিরাপদ ব্যবহারে হেলপ কক্সবাজারের সচেতনতা ক্যাম্পেইন চকরিয়ায় যাত্রীবেশে বাসে ডাকাতির ঘটনায় ৬ জন গ্রেফতার উখিয়ায় অবৈধ করাতকল উচ্ছেদ, বিপুল পরিমাণ কাঠ জব্দ কক্সবাজার কারাগারে কয়েদির আত্মহত্যা মছ্লেহ উদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুতে টিএমসি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শোক পেকুয়ার যুবক আফ্রিকায় ডাকাতের গুলিতে নিহত টেকনাফে ৬টি সোনার বার ও মিয়ানমারের ৯৫০ কিয়াট মুদ্রা উদ্ধার চকরিয়ার ডুলাহাজারায় পাহাড় কেটে মাটি লুট : দুই ডাম্পার জব্দ টেকনাফ-সেন্টমাটিন নৌপথ বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিবে ৪৩ সাঁতারু
বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:১৫ অপরাহ্ন

জলাবদ্ধতা নিরসনে আগাম মাঠে নেমেছে কক্সবাজার পৌরসভা

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ২৪, ২০১৮ ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ২৪, ২০১৮ ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

কক্সবাজার পোস্ট ডটকম::
আসন্ন বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা থেকে কক্সবাজার পৌরবাসীকে স্বস্থি দিতে কোমর বেধে মাঠে নেমেছে কক্সবাজার পৌরসভা। কর্মসুচীর অংশ হিসাবে প্রায় অর্ধ কোটি টাকা ব্যয়ে পৌর এলাকার সব গুলো ছোট বড় নালা পরিষ্কার করা এবং বড় নালা গুলোর গভীর থেকে মাটি উত্তোলন করা এছাড়া পানি চলাচলে বাধা হয় এমন স্থাপন উচ্ছেদ একই সাথে আরো প্রায় ২ কিলোমিটার নালা করার কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।
কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী জানান, বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ার আগে পৌর এলাকার সব নালা শতভাগ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করার কাজ চলছে। কাজের অংশ হিসাবে বাজার ঘাটায় রাস্তার দুপাশে বড় নালা একেবারে গভীর থেকে মাটি উত্তোলন, হোটেল মোটেল জোনের পানি চলাচলের একমাত্র নালার শতভাগ পরিষ্কার করণ, হোটেল শৈবাল সহ আশপাশের নালা পরিষ্কার করণ, এছাড়া পেশকার পাড়াতে সে সব বড় নালা দিয়ে পানি বাকঁখালী নদীতে পড়বে সেই সব নালা পরিষ্কার করার কাজ শুরু হয়েছে। ইতি মধ্যে বার্মিজ মার্কেটের সাবেক পড়শী নালা, তারাবনিয়ারছড়ার বড় নালা, রুমালিয়ারছড়ার নালা, বড়ুয়া পাড়ার নালা সহ পৌরসভার ১২ টি ওয়ার্ডের সব ছোট বড় নালা বা ছড়া পরিষ্কার করার কাজ চলছে। তিনি জানান গত বছর আমাদের চেস্টায় আমরা বাজারঘাটা এলাকাকে জলাবদ্ধতা মুক্ত রাখতে সফল হয়েছি,এতে বড় বাজার এলাকার কয়েক হাজার ব্যবসায়ি স্বস্থি মধ্যে বর্ষা মৌসুম পার করতে পেরেছে। আমার শত ভাগ আন্তরিকতা থাকবে মানুষ যেন পানিতে কস্ট না পায়। এ জন্য যদি পানি চলাচলে বাধা হয়ে দাড়ায় এমন কোন স্থাপনা থাকে সেগুলো দ্রুত অপসারন করা হবে। এসময় পৌর মেয়র জানান পৌর এলাকাতে আরো নতুন ২ কিলোমিটার নালা সম্প্রসারণের কাজ চলছে।
এদিকে পৌর সচিব রাসেল চৌধুরী বলেন, পৌর মেয়রের নির্দেশে বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ার আগে পৌর এলাকার সব নালা নর্দমা পরিষ্কার করার কাজ চলছে পুরোদমে। এখানে প্রায় ২ শতাধিক শ্রমিক কাজ করছে তাও দিনে রাতে, এ জন্য প্রায় অর্ধকোট টাকার বাজেট নিয়ে কাজ চলছে।
এদিকে কক্সবাজার পৌরসভার কাউন্সিলার রাজবিহারী দাশ বলেণ, পৌরসভার পক্ষ থেকে সব সময় সাধ্যমত চেস্টা করা হয়,কিন্তু শহরের আশেপাশে পাহাড় কাটা বন্ধ না হলে পৌরসভার এই ভাল উদ্যোগ জনগনের কাজে আসবে না। সবাই জানে বৃস্টির সময় পাহাড়ে বসবাসকারীরা জমির পরিমান বাড়ানোর জন্য এবং দখল বেদখল করার জন্য পাহাড় কাটে তাই সেই মাটি বৃস্টির পানির সাথে নালাতে এসে পড়ে, ফলে নালা ভরে যায়। তাই আমাদের প্রথম দাবী থাকবে পাহাড় কাটা শতভাগ বন্ধ করার জন্য। আরেক পৌর কাউন্সিলার সিরাজুল হক বলেন,পানি বাকখাঁলী নদীতে পড়ার জন্য পেশকার পাড়া এবং টেকপাড়াতে যে দুটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্লুইস গেইট আছে সে গুলো দ্রুত মেরামত করে সচল করতে হবে।
এদিকে বর্ষা মৌসুমের আগে ব্যাপকহারে নালা নর্দমা পরিষ্কার করাকে স্বাগত জানিয়ে ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি দেলোয়ার হোসেন জান্নু বলেন, আগে আমরা দেখতাম বর্ষা আসলেই সবার মাথা ব্যাথা শুরু হতো। বৃস্টিও পড়তো আর নালা খুড়তো এখন আগে ভাগেই নালা পরিষ্কার হচ্ছে বা কিছু জায়গায় নতুন নালা হচ্ছে সেটা খুবই ভাল দিক।এতে সাধারণ মানুষ অনেক স্বস্থি পাবে। একই সাথে যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতা করিম উল্লাহ বলেন,পৌরসভা চাইলে যে মানুষকে সেবা দিতে পারে সেটা আমরা গত বছর দেখেছি। আগে যে বাজার ঘাটা দিয়ে বর্ষা কালে চলাচল করা যেত না সেই বাজার ঘাটাতে কোন পানি ছিল না। তাই আমাদের পক্ষ থেকে পৌরসভার মেয়রকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি পাশাপাশি অতি গুরুত্বপূর্ন নালার উপর সব ধরনের অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে ফেলার জন্য আহবান করছি।

সুত্র :: দৈনিক কক্সবাজার

  • কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
    কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
    এই জাতীয় আরো খবর::