শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

চকরিয়া সড়কে প্রাণহানি রোধে আইনের কঠোর প্রয়োগ ও সচেতনতা দরকার : হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: রবিবার, ১৩ মার্চ, ২০২২

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া ::

বাংলাদেশ হাইওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মল্লিক ফখরুল ইসলাম বলেছেন, সারাদেশে সড়ক-মহাসড়কে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনা ঘটছে। আর বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এসব দূর্ঘটনার জন্য দায়ী আইনের যথাযথ প্রয়োগ থেকে বিচ্যুতি হওয়া এবং অদক্ষ অনভিজ্ঞ চালকদের অসতর্কতা ও সচেতনতার অভাবে।

তিনি বলেন, অধিকাংশ যানবাহনের ফিটনেস যেমন নেই, তেমনি বেশিরভাগ চালকও পড়ালেখা জানেন না, আবার অভিজ্ঞও না। ফলে সড়কে ঝুঁিকপুর্ণ পয়েন্টে বসানো সতর্কতামুলক সাইনবোর্ড গুলোও ঠিকমতো পড়তে জানেনা তাঁরা। তাতে দুর-দুরান্ত বা অন্য জেলা থেকে আগত চালকরা নতুন সড়কের ঝুঁিকপুর্ণ এসব পয়েন্টে সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকেনা। তাতে দূর্ঘটনা ঘটছে হরখামেশা।

শনিবার ১২ মার্চ সকালে চকরিয়া উপজেলার মালুমঘাট হাইওয়ে থানা পুলিশের আয়োজনে ট্রাফিক ব্যাবস্থাপনা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন হাইওয়ে পুলিশের এডিশনাল আইজিপি মল্লিক ফখরুল ইসলাম।

অতিরিক্তি আইজিপি বলেন, সড়কে মর্মান্তিক প্রাণহাণি রোধকল্পে আইনের কঠোর প্রয়োগ বাড়ানোর পাশাপাশি যানবাহন চালক, মালিকসহ সমাজের প্রতিটি মানুষের প্রচেষ্টা থাকতে হবে। সচেতনতা বাড়াতে হবে সর্বস্তরের জনগণের মাঝে। এটি কোন নির্দিষ্ট পক্ষের দায়িত্ব নয়। পুলিশের সাথে সমাজের নীতিনির্ধারক, গণমাধ্যম, ব্যক্তিপর্যায়সহ সব পক্ষের এ বিষয়ে দায়িত্ব পালন করা প্রয়োজন। সকলের সমন্বিত উদ্যোগই পারে মহাসড়কে দুর্ঘটনা রোধ করে মৃত্যুর হার নিয়ন্ত্রণে আনতে।

হাইওয়ে পুলিশ জনবান্ধব পুলিশিংকে সর্বাধিক গুরুত্ব আরোপ করে মহাসড়কে জনগণের কাঙ্খিত সেবা নিশ্চিত করতে কাজ করছেন উল্লেখ করে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা রিজিয়নের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ বলেন, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার দেশের একটি ব্যস্ততম মহাসড়ক। পর্যটন নগরীতে আসা-যাওয়া করছে প্রতিদিন অহরহ যানবাহন। তাই এখানকার মহাসড়কের নিরাপত্তায় দায়িত্বশীলদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা থাকতে হবে। মহাসড়কের শতভাগ আইন বাস্তবায়নের পাশাপাশি প্রতি স্থরের জনগণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।

তিনি বলেন, যানবাহন চালক মালিকদের সতর্ক থাকতে হবে যেন দীর্ঘক্ষণ বিরতিহীনভাবে গাড়ি না চালায়। এ ছাড়া নিষিদ্ধ ও বেপরোয়া গতির যানবাহন চালকদের কিছুতেই ছাড় দেয়া যাবে না। মালুমঘাট হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমন কান্তি চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা হাইওয়ে রিজিয়নে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরহাদ।

উপস্থিত ছিলেন ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসানুল ইসলাম আদর, চিরিঙ্গা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর এবং মালুমঘাট-চিরিঙ্গা হাইওয়ে থানার পুলিশ সদস্যবৃন্দ।


আরো খবর: