সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১২:৩৯ অপরাহ্ন
ঘোষণা:
কক্সবাজার পোস্টে আপনাকে স্বাগতম, আমাদের সাথে থাকুন,কক্সবাজারকে জানুন......

চকরিয়ায় লকডাউন কার্যকরে জনগনের উদ্দেশ্যে প্রশাসনের সাত নির্দেশনা জারি

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া::

প্রকাশ: এপ্রিল ৫, ২০২১ ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ৫, ২০২১ ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ থেকে চকরিয়া উপজেলার আটার ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা জনপদে ৬ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসুরক্ষা নিশ্চিতে উপজেলার প্রতিটি অঞ্চলে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছেন উপজেলা প্রশাসন।

সোমবার চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ সামসুল তাবরীজ, সহকারি কমিশনার ভুমি মো.তানভীর হোসেন, চকরিয়া থানার ওসি শাকের মুহাম্মদ যোবায়ের একসঙ্গে লকডাউন কার্যকরে বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন পুর্বক মনিটরিং করেছেন।

মাঠ তদারকির পাশাপাশি লকডাউন কার্যকরে চকরিয়াবাসির সার্বিক সহযোগিতা চেয়ে উপজেলা প্রশাসন সাতটি নির্দেশনা জারি করেছে। সোমবার ৫ এপ্রিল চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের সরকারি প্রচার মাধ্যম ফেসবুক ফেইজে জারি করা নির্দেশনায় চকরিয়াবাসি সকলের অবগতির জন্য জানানো হচ্ছে (১) ৫ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত লকডাউন। (২) সন্ধ্যা ৬টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত বাড়ির বাইরে যাওয়া যাবে না। (৩) ১ সপ্তাহের লকডাউনের আনুষ্ঠানিক প্রজ্ঞাপন জারি। (৪) কাঁচাবাজার খোলা থাকবে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। (৫) লকডাউনে ব্যাংকিং ব্যবস্থা সীমিত পরিসরে চলবে। (৬) হোটেল রেস্তোঁরায় খাবার গ্রহণ নিষিদ্ধ। (৭) সব ধরনের গণ পরিবহন বন্ধ থাকবে। উল্লেখিত সরকারি নির্দেশনা অমান্যকারীগন সামনে কঠিনতর জরিমানার সম্মূখীন হবেন বলেও জানানো হয়েছে।
এদিকে লকডাউনের প্রথমদিনে সোমবার উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাঠ তদারকি করেছেন চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালতের দুই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেয়দ শামসুল তাবরিজ এবং মো.তানভির হোসেন। এসময় আদালত চকরিয়া পৌরশহর এবং উপজেলার বিভিন্ন জনপদে লকডাউন লঙ্ঘনের অপরাধে মোবাইল কোর্টে ২৪ টি মামলায় ১,০২,৫০০ টাকা জরিমানা করেছে।
মুলত করোনা ভাইরাস এর সংক্রমন প্রতিরোধে লকডাউনে সরকারের নির্দেশনা না মেনে নিয়মের বাইরে দোকান খোলা রাখা, স্বাস্থ্যবিধি না মানা, মাস্ক পরিধান না করার কারণে আদালত ২৪ টি মামলায় উল্লেখিত টাকা জরিমানা করেন।
আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরিজ বলেন, সরকার ঘোষিত দ্বিতীয় ধাপের লকডাউন বাস্তবায়ন করতে সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। ওইসময় স্বাস্থবিধি অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ২৪টি মামলায় উল্লেখিত প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিকে ১,০২,৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
ইউএনও সৈয়দ সামসুল তাবরীজ চকরিয়াবাসি সবাইকে সরকারি নির্দেশনা মতে লকডাউন বিধি মেনে চলতে আহবান জানান। একই সঙ্গে লকডাউন সময়ে চকরিয়ায় সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কাঁচাবাজার, মুদি দোকান, ফার্মেসী, হাসপাতাল ছাড়া সব দোকান বন্ধ থাকবে এবং সন্ধ্যা ৬টার থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত প্রয়োজন ছাড়াই ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য সর্বসাধারণকে অনুরোধ জানান ।
অভিযানে আদালতের সাথে উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) তানভীর হোসেন, চকরিয়া থানার ওসি শাকের মুহাম্মদ যোবায়ের, পৌরসভার কাউন্সিলর মুজিবুল হক মুজিব, উপজেলা তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তা এরশাদুল হক, থানা পুলিশ, আনসার সদস্য ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::