শিরোনাম :
উখিয়া প্রেসক্লাব নির্বাচনের চুড়ান্ত প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ আলীকদমে শর্টবড়ি (চাঁদেরগাড়ী) মাইক্রো বাস মালিক সমবায় সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন ঝিলংজা ইউনিয়ন যুবলীগের ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠিত উখিয়ার আবদুর রহিম ইয়াবা নিয়ে র‍্যাবের হাতে আটক নাইট কোচে ডাকাতি: গ্রেপ্তারকৃত বাস চালক সহ তিনজনকে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন মহেশখালী থেকে ছিনতাই হওয়া মটরসাইকেল উদ্ধার : গ্রেফতার-১ টেকনাফে ১০হাজার ইয়াবা বড়িসহ আটক-১ কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পরিবেশ, পর্যটন ও উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত সেন্টমার্টিনে কোস্টগার্ডের অভিযানে ইয়াবা ও গাজাসহ আটক ২ উৎসবমুখর পরিবেশে উখিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র জমা
সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৪:২৪ অপরাহ্ন

চকরিয়ায় রাতের আধাঁরে মৎস্য প্রকল্পে বিষ প্রয়োগে মাছ নিধন

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ১৩, ২০১৮ ৭:৪৮ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ১৩, ২০১৮ ৭:৪৮ অপরাহ্ণ

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া ::

চকরিয়ায় রাতের আঁধারে একটি মৎস্য প্রকল্পে বিষ দিয়ে প্রায় ১১লাখ টাকার মূল্যের মাছ মেরে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ছয় কুড়িটিক্কা গ্রামের সরওয়ার আলমের মৎস্য প্রকল্পে।

শুক্রবার সকালে প্রকল্পের পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠে। এ ঘটনায় মৎস্য প্রকল্পের মালিক চকরিয়া থানার ওসিকে অবহিত করেছেন বলে জানান।

মৎস্য প্রকল্পটির মালিক সরওয়ার আলম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে তার মৎস্য প্রকল্পের ৫টি পুকুরের মধ্যে একটি পুকুরে শত্রুতা করে কে বা কারা বিষ ঢেলে দিয়েছে।

শুক্রবার সকালে প্রকল্পে গেলে দেখতে পান ওই পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠেছে। এতে তাঁর ১১লাখ টাকার মাছ মরে গেছে বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্থ প্রকল্প মালিক।

ভুক্তভোগী সরওয়ার আলম জানান, তিনি এক বছর আগে ঢেমুশিয়া ইউয়িননের ছয় কুড়িটিক্কা গ্রামে ৮ কাণি জমি নিয়ে ৫টি পুকুর খনন করে এই মৎস্য প্রকল্প তৈরী করেন। ওই প্রকল্প থেকে এ বছর প্রথম দফায় ১৮লাখ টাকা মূল্যের পাংগাস, নাইলেটিকা ও কার্প মাছ বিক্রি করেন।

প্রথম পর্যায়ে ওই পরিমান টাকার মাছ বিক্রি করতে পারায় ২য় পর্যায়ে আরও অধিক লাভের আশায় ২২লাখ টাকা বিনিয়োগ করেন। দ্বিতীয় পর্যায়ের মাছ বড় হলে বিক্রি করার মুহুর্তেই এই শত্রুতা।

তিনি জানান, অনেক টাকা ধার কর্জ করে এই মৎস্য প্রকল্প তৈরী করা হয়েছে। এক সাথে প্রায় ১১লাখ টাকার মাছ মেরে ফেলার ফলে এখন তার স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে। এ ঘটনায় তরুন উদ্যোক্তা সওয়ার আলম নিরাশ হয়ে পড়েছেন। তার অন্যান্য পুকুর গুলোতেও এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে তিনি আশংকা প্রকাশ করছেন। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত তিনি একটি পুকুর থেকে প্রায় ৭০মন মরা মাছ তুলেছেন বলে জানিয়েছেন।

চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিষ প্রয়োগে মাছ নিধনের ঘটনাটি মালিক অবগত করেছেন। তবে লিখিত অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::