তারিখ: মঙ্গলবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া ::
চকরিয়ায় স্টারলাইন পরিবহনের যাত্রীবাহি বাস ও লেগুনা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে সাতজন নিহতের ঘটনার ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে ফের কক্সবাজার চট্টগ্রাম-মহাসড়কের উপজেলার হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকায় কাভার্ড ভ্যানের সঙ্গে ইজিবাইক (স্থানীয় ভাষায় টমটম) গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে নারীসহ যাত্রী ৪ নিহত হয়েছে। এসময় গুরুতর আহত হয়েছে মা-মেয়েসহ আরো পাঁচ যাত্রীা। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটেছে এ সড়ক দুর্ঘটনা। দুর্ঘটনার পরপর স্থানীয় লোকজন, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করেছে। তবে আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেছে।
গতকালের দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন ইজিবাইক গাড়ির যাত্রী চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের মুসলিমপাড়া গ্রামের আবদুস সাত্তারের ছেলে মো. তাজউদ্দিন (২২), একই ইউনিয়নের জমিদার পাড়ার ছৈয়দ আহমদের ছেলে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি আবু তাহের (৪৮), পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের আবদুল খালেকের ছেলে ইউনুছ মিয়া (৩৫) ও চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার প্রেমবাজার এলাকার সেলিম উদ্দিনের স্ত্রী হাছিনা বেগম (৪২)।
আহতরা হলেন, চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের গয়ালমারা এলাকার দলিলুর রহমানের ছেলে জালাল উদ্দিন (৪৪), আবুল হোছাইনের ছেলে নূর হোছাইন (৪০), চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার প্রেমবাজার এলাকার মো. সেলিমের স্ত্রী সেলিনা আক্তার (৩২) তার শিশু কন্যা তাছফি (৮) ও অপর এক অজ্ঞাতনামা নারী।
প্রত্যক্ষদর্শী ও হাইওয়ে পুলিশ জানায়, গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজারগামী একটি কাভার্ড ভ্যান মহাসড়কের হারবাং ইনানী রিসোর্ট এলাকায় পৌছলে বিপরীতদিক থেকে আসা একটি ইজিবাইক (টমটম) গাড়িকে মুখোমুখি চাপা দেয়। এসময় ইজিবাইকের দুই যাত্রী ঘটনাস্থলে মারা যায়।
ওইসময় গাড়িতে থাকা অপর ৭ যাত্রী সবাই আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে দুইজন মারা যায়।
চকরিয়া থানার এসাই সুকান্ত চৌধুরী বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে চকরিয়া থানা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার ব্যবস্থা করেন। আহতের চমেক হাসপাতালে রেফার করেছে কর্তব্যরত চিকিৎসক।
মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশের আইসি (ইনচার্জ) মো. নুরে আলম পলাশ বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত কাভার্ড ভ্যান ও টমটম জব্দ করা হয়েছে। আইনী পক্রিয়া শেষে মরদেহ গুলো পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ##

আপনার মতামত প্রদান করুন ::