সোমবার, ০২ অক্টোবর ২০২৩, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..  

চকরিয়ায় ধর্ষণ মামলার বাদির বসত-ঘরে হামলা ; ২০ভরি স্বর্ণালঙ্কার-নগদ টাকা লুটের অভিযোগ!

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ২২ মার্চ, ২০২২

নিজস্ব প্রতিনিধি,চকরিয়া::

চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নে মামলার অভিযুক্ত আসামি জামিনে এসে ফের সহযোগিদের নিয়ে বাদির বাড়িতে হামলা-ভাংচুর চালিয়েছে। এসময় বাদির বাড়ি থেকে নগদ ৫ লাখ ৭০ হ্াজার টাকা ও ২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কারসহ মালামাল লুটে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ভুক্তভোগী বাদি। রোববার ২০ মার্চ ভোররাত আনুমানিক চারটার দিকে ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ছড়িবিল গ্রামে ঘটেছে এ হামলা-লুট তাণ্ডবের ঘটনা।

মামলার বাদি উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ছড়িবিল গ্রামের জসিম উদ্দিনের স্ত্রী মোমেনা আক্তার মোনা (৩০) নিজবাড়িতে সাংবাদিকদের বলেন, ২০২২ সালের ২৭ ফেব্র“য়ারী সকাল আনুমানিক দশটার দিকে তিনি বাড়ির রুমের ভেতর খাটে ঘুমিয়ে ছিলেন। ওইসময় পরিবার সদস্যদের অজান্তে একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের দক্ষিনপাড়ার মো.ইসমাইলের ছেলে ফজলুল করিম তাঁর রুমের ভেতরে ঢুকে পড়ে।

মামলার আর্জিতে তিনি দাবি করেন, হঠাৎ শরীরে কেউ যেন হাত দিয়েছে, এইধরণের অনুভুতি থেকে তাঁর ঘুম ভেঙ্গে যায়। এসময় দেখতে পান অভিযুক্ত ফজলুল করিম তাকে রুমের ভেতর একাপেয়ে বুকের কাপড়-চোপড় টানা-হেঁচড়া করে ধর্ষণ চেষ্ঠায় উদ্যত হন। বিষয়টি তিনি আঁচ করতে পেরে শোর-চিৎকার করলে আশপাশের বাড়ির প্রতিবেশির লোকজন এগিয়ে এসে ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্তকে হাতেনাতে আটক করে। তাৎক্ষনিক ঘটনাটি স্থানীয় ইউপি মেম্বারকে ঘটনাটি জানানো হলে তিনি সেখানে উপস্থিত হবার আগে আত্মীয় স্বজন এসে জোরপুর্বক তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়।

বাদি মোমেনা আক্তার মোনা বলেন, পরে এ ঘটনায় আমি গত ২ মার্চ চকরিয়া থানায় ফজলুল করিমকে আসামি করে একটি মামলা (নং ০২) দায়ের করি। শুনেছি, পরে অভিযুক্ত ফজলুল উচ্চ আদালত থেকে মামলায় জামিন নিয়েছে।

বাদি অভিযোগ করে বলেন, অভিযুক্ত আসামি আদালত থেকে জামিন পেয়েছে শুনে আমি আতঙ্কিত ছিলাম। এরই মধ্যে রোববার ২০ মার্চ ভোররাত আনুমানিক চারটার দিকে অভিযুক্ত ফজলুল করিমের নেতৃত্বে তাঁর সহযোগি আমির সুলতান ও ছাদেকুর রহমানসহ একদল লোক আমার বাড়িতে ঢুকে পড়ে। এসময় তাঁরা হামলা চালিয়ে বাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর করে। ঘটনার সময় তাঁরা বাড়ির আলমিরা থেকে নগদ ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা, ২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে গেছে।

ভিকটিম বাদি মোমেনা আক্তার মোনা বলেন, মামলায় জামিনে এসে ফের আমার বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় ঘটনার দিন চকরিয়া থানায় নতুন একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে অভিযুক্তরা আমার পরিবারকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। আমি পুলিশ প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছি।


আরো খবর: