শিরোনাম :
জেলে পরিবারে চলছে নিরব দুর্ভিক্ষ কুতুবদিয়া থানার নতুন ওসি হিসেবে যোগদান করলেন ওমর হায়দার কক্সবাজারে বৃহস্পতিবার ৫৯ জনের করোনা শনাক্ত কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় ৩ পুলিশ পরিদর্শকসহ ১৭ জনের নামে মামলা সৌদিতে কারগাড়ির চাপায় চকরিয়ার যুবক নিহত, বাড়িতে শোকের মাতম চকরিয়ায় যাত্রীবেশী দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে টমটম চালক খুন জেলা আওয়ামী লীগের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝির অবশান, শেষে চকরিয়ায় এমপি জাফর ও লিটুকে গণসংবর্ধনা চকরিয়ায় বনের উপর নির্ভশীল ভিসিএফ সদস্যদের মধ্যে ক্ষুদ্র মূলধনের ২২ লক্ষ টাকা অনুদান বিতরণ টেকনাফে মাদক কারবারীর বাড়ি থেকে ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা আটক চকরিয়ায় ২ হাজার ৪শ ইয়াবাসহ পাচারকারী ৩ নারী আটক
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা:
কক্সবাজার পোস্টে আপনাকে স্বাগতম, আমাদের সাথে থাকুন,কক্সবাজারকে জানুন......

চকরিয়ায় ইলিশিয়া গরু বাজারে কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: এপ্রিল ১২, ২০১৮ ৮:৩৪ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: এপ্রিল ১২, ২০১৮ ৮:৩৪ অপরাহ্ণ

আবদুল মজিদ, চকরিয়া:
কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার পশ্চিম বড়ভেওলা ইউনিয়নে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী ইলিশিয়া গরু বাজার থেকে বছরে কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। এদিকে এ বাজারটি ৬৬ লাখ টাকায় সরকারিভাবে ইজারা কিংবা খাস কালেকশনের অনুমতি পেতে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করেছেন উপজেলার পুর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামের বাসিন্দা এম আজিজুর রহিম নামের এক ব্যক্তি। গত ৫ এপ্রিল আবেদনটি করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে গতকাল ১২ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টার দিকে জানতে চাইলে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুরুদ্দিন মো: শিবলী নোমান বলেন, তার অফিসসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে দেয়া আজিজুর রহিমের আবেদনটি পেয়েছেন। পশ্চিম বড়ভেওলার ইলিশিয়া গরু বাজারটি খাস কালেকশন নির্ধারণ করতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)কে দায়িত্ব দিয়েছেন। সহকারী কমিশনার সরে জমিনে গিয়ে তদন্ত করে এর প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবেন। তিনি আরো বলেন, এই বাজার নিয়ে উচ্চ আদালতে একটি মামলা থাকায় সরাসরি ইজারা দেওয়া যাচ্ছেনা। তাই যত দ্রুত সম্ভব আইনীভাবে মোকাবেলা করে এ বাজারটি সরকারের পক্ষ থেকে সন সন ইজারার আওতায় নিয়ে আসা হবে।

ইজারা কিংবা খাস কালেকশনের আবেদনকারী জানিয়েছেন, স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন উপজেলার আওতাধীন সরকারি সব হাট-বাজার ইতোমধ্যে ইজারা কার্যক্রম সম্পন্ন করলেও ইলিশিয়া গরু বাজারটি এখনো ইজারার প্রক্রিয়ায় আনা হয়নি। তাই তিনি নিজেই বাজারটি সরকারি নিয়ম মোতাবেক সর্বোচ্চ ৬৬ লাখ টাকায় ইজারা পেতে আগ্রহী।

আজিজুর রহিম আবেদনে লিখেছেন, ২০১৫ সালে তিনি ইলিশিয়া গরু বাজারটি সরকারিভাবে যথাযথ নিয়মের মাধ্যমে ৪০ লাখ টাকায় ইজারা নিতে আগ্রহী ছিলেন। এব্যাপারে তিনি তৎকালীন জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদনও করেন। এরপর জেলা প্রশাসক এক নম্বর খাস খতিয়ান থেকে বাজারটির জন্য ৭২ শতক জমি বরাদ্দ দেন। পরবর্তীতে ওই জমি ফেরিফেরিভুক্ত করে বাজারটির ইজারা কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য জেলা প্রশাসক চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ( সদ্য বদলী মো.সাহেদুল ইসলাম) নির্দেশ দেন। কিন্তু ওইসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাকে (আবেদনকারী) বলেন বাজারটি অপর একটি পক্ষ ৪২ লাখ টাকায় ইজারা নিয়েছেন। তাকে ওইসময় আশ^াস দেন পরের বছর থেকে বাজারটি ইজারা দেয়ার নিমিত্তে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।

আবেদনকারী আজিজুর রহিম আরো জানান, চলতি ২০১৮ সালে উপজেলা প্রশাসন চকরিয়া উপজেলার প্রায় হাট-বাজার (১৪২৫) বাংলা সনের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে সরকারি নিয়ম মোতাবেক ইজারা দিয়েছেন। কিন্তু এবারও বিজ্ঞপ্তিতে ইলিশিয়া গরু বাজারটি স্থান পায়নি। ফলে বাজারটি এখনো সরকারিভাবে ইজারা কার্যক্রমে উঠেনি। তাই সচেতন নাগরিক হিসেবে তিনি বিবেকের তাড়নায় প্রতিমাসে সাড়ে ৫ লাখ টাকা করে একবছরের জন্য ৬৬ লাখ টাকায় বাজারটি ইজারা নিতে আগ্রহী বলে জেলা প্রশাসকের কাছে দাখিল করা আবেদনে উল্লেখ্য করেছেন। ইতিপূর্বে উক্ত বিষয় নিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ঢাকা, বিভাগীয় কমিশনার চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন ও অনুলিপি দেওয়া হয়েছে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::

সর্বশেষ