তারিখ: মঙ্গলবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া ::
চট্টগ্রাম দক্ষিন বনবিভাগের চুনতী রেঞ্জের অধীন চকরিয়া উপজেলার হারবাং বনবিট এবং সাতঘর বনবিটের সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী গরীব পরিবারের নারী-পুরুষের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত রোববার সকালে চুনতী রেঞ্জের কার্যালয়ে রেঞ্জ কর্মকর্তা এসএম নুরুর রহমানের সভাপতিত্বে বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিন বনবিভাগের বিভাগীয় বনকর্মকর্তা মোজাম্মেল হক শাহ চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম, চট্টগ্রাম দক্ষিন বনবিভাগের সহকারি বনসংরক্ষক ফাহিম মাসুদ, চট্টগ্রাম জেলা সদস্য আনোয়ার কামাল, হারবাং ও সাতঘর বনবিটের কর্মকর্তা। অনুষ্ঠানে চকরিয়া উপজেলার হারবাং বনবিটের সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী নারী-পুরুষের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ করেছেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম। অপরদিকে সাতঘর বনবিটের সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী নারী-পুরুষের মাঝেচেক বিতরণ করেন বিভাগীয় বনকর্মকর্তা মোজাম্মেল হক শাহ চৌধুরী।
বিতরণ অনুষ্ঠানে চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ জাফর আলম বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসীন হওয়ার দেশের গরীব মানুষের সুন্দর জীবন নিশ্চিতে পরিকল্পিতভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আজকে সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী নারী-পুরুষের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণের এই মহতি অনুষ্ঠানটি তাঁর উজ্জল দৃষ্টান্ত। এভাবে দেশের প্রতিটি সেক্টরে অর্থনৈকিত উন্নতি সাধনের মাধ্যমে সরকার জনগনের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করছেন। দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।
তিনি বলেন, সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী হিসেবে গরীব নারী-পুরুষকে সম্পৃক্ত করে সরকার একদিকে বনজসম্পদের সুরক্ষা নিশ্চিত করেছেন। অপরদিকে অভাবগ্রস্থ এসব পরিবারকে অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা দিয়ে জীবন চলার পথে নতুন দিশা তৈরী করেছেন। আগামীতেও সরকারের এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বিভাগীয় বনকর্মকর্তা মোজাম্মেল হক শাহ চৌধুরী বলেছেন, সামাজিক বনায়নের প্রকল্পটি সরকার প্রধানের সদিচ্ছায় দেশে প্রচলিত হয়েছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের হাজার হাজার গরীব মানুষ আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছে। পাশাপাশি বনজসম্পদের সুরক্ষা মজবুত হয়েছে। সরকারের কোষাগারে যোগ হচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব। সরকার প্রধানের অনন্য ভুমিকার কারনে আজ সামাজিক বনায়ন প্রকল্পটি দেশের গরীব মানুষের ভাগ্যের চাকা ঘুরিয়ে দিয়েছে।
অনুষ্ঠানে হারবাং বনবিটের ১৫জন উপকারভোগীর মাঝে ১ লাখ ৭২ হাজার ৪১৮ টাকা ও সাতঘর বনবিটের ১৫জন উপকারভোগীর মাঝে ১ লাখ ৩৬ হাজার দুইশত টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে। ##

আপনার মতামত প্রদান করুন ::