তারিখ: মঙ্গলবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

প্রসেনজিৎ দাস , ভারতের প্রতিনিধি , ৫ সেপ্ঢেম্বর৷৷ শহরের শনিতলা এলাকায় গৃহবধূ রূপালি বনিক নির্যাতনের ঘটনার প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেপ্তার এবং অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মঙ্গলবার আগরতলা পূর্ব মহিলা থানায় ডেপুটেশন দিয়েছে প্রদেশ যুব কংগ্রেস৷ এদিন সন্ধ্যায় যুব কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা পূর্ব আগরতলা মহিলা থানায় ধর্ণা দেয়৷ থানার ওসির কাছে দাবী জানিয়েছে অবিলম্বে ঐ গৃহবধূর স্বামী সৈকত সাহাকে গ্রেপ্তার করতে হবে৷ যুব কংগ্রেস কর্মীরা অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের নির্বাচনী এলাকায় সংশ্লিষ্ট বুথের বিজেপি নেতা সৈকত সাহা৷ তাকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না শাসক দলের সক্রিয় নেতা বলে৷ অবিলম্বে সৈকত সাহাকে গ্রেপ্তাররে দাবী জানায় যুব কংগ্রেস৷ অন্যথায় যুব কংগ্রেস আগামীদিনে বৃহত্তর আন্দোলন সংগঠিত করবে বলে হুশিয়ারী দিয়েছে৷
প্রসঙ্গত, পাঁচদিন যাবৎ গৃহবধূকে খাবার না দিয়ে ঘরে আটকে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িত শ্বশুর ও শাশুড়িকে পুলিশ আটক করেছে৷ পালিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে স্বামী৷ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজধানী আগরতলা শহরের শনিতলা এলাকায় রীতিমতো চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে৷
জানা গিয়েছে, শনিতলা এলাকার শংকর সাহার ছেলে সৈকত সাহার সাথে বিয়ে হয়েছিল যোগেন্দ্রনগরের রূপা বনিকের৷ বিয়ের এক দেড় বছর পর থেকেই পণের জন্য রূপার উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার চালানো হত বলে অভিযোগ৷ রূপা জানিয়েছেন, শ্বশুর বাড়ির লোকদের পছন্দমতো আসবাবপত্র বিয়েছে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ এনে তাকে মারধর করা হত৷ গত কয়েকদিন যাবত তাকে খাবার না দিয়ে ঘরে আটকে রাখে৷ রূপার সাত মাসের একটি সন্তান রয়েছে৷ নির্যাতিতার চিৎকার শুনে প্রতিবেশী গিয়ে তাকে উদ্ধার করে এবং পুলিশকে খবর দেয়৷ পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রূপা ও তার শিশু সন্তানকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়৷ অন্যদিকে নির্যাতনের অভিযোগে শ্বশুর ও শাশুড়িকে আটক করা হয়েছে৷ অন্যদিকে ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই গা ঢাকা দিয়েছে নির্যাতিতার স্বামী সৈকত সাহা৷

আপনার মতামত প্রদান করুন ::