রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৫৬ অপরাহ্ন

গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ, নিহত বেড়ে ৩৭

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ১৪, ২০১৮ ৭:২১ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ১৪, ২০১৮ ৭:২১ পূর্বাহ্ণ

সোমবার গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের সীমান্তের কাছে প্রতিবাদরত ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলি, টিয়ারগ্যাস ও বোমা নিক্ষেপ করায় কমপক্ষে ৩৭ জন নিহত ও প্রায় ১৭০০ জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আহত ১,৭০০ জনের মধ্যে ৭৪ জনের বয়স ১৮ বছরের নিচে, ২৩ জন নারী এবং আটজন সাংবাদিক রয়েছেন।

সোমবার জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের ইসরাইল দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদে গাজা উপত্যকায় কমপক্ষে ১০ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি সমবেত হয়।

এসময় ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এখন পর্যন্ত ৩৭ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে আলজাজিরা।

সোমবার সকাল থেকে ফিলিস্তিনিরা অধিকৃত গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের সীমান্তে সমবেত হতে থাকে এবং ব্যাপক সুরক্ষায় ঘেরা সীমান্ত বেড়া অতিক্রম করার চেষ্টা চালায়।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ভূমি দিবস উপলক্ষে ফিলিস্তিনি শরণার্থীরা তাদের নিজ ভূমিতে ফিরে যাওয়ার দাবীতে পদযাত্রার আয়োজন করে আসছে। ১৯৪৮ সালে তাদের ওই অঞ্চল থেকে জোর করে উচ্ছেদ করা হয়।

এই কর্মসূচীর শুরুর পর ইসরাইলি বাহিনীর গুলিতে ৮৬ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনিকে নিহত হয়েছে।

স্থানীয় সাংবাদিক মারাম হুমাইদ আলজাজিরাকে বলেন, ‘গত সাত সপ্তাহে এই বিক্ষোভ সমাবেশে যত মানুষ সমবেত হয়েছিল তার তুলনায় আজকে বহুগুণ বেশি ফিলিস্তিনি প্রতিবাদের জন্য জড়ো হয়েছেন।’

গত ৩০ মার্চ শুরু হওয়া এই শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচি শেষ হবে আগামীকাল (১৫ মে)।

এ দিনটিকে আবার ফিলিস্তিনিরা নাকবা দিবস হিসেবে পালন করেন। ১৯৪৮ সালের ১৫ মে ইহুদিবাদী ইসরাইল সাড় সাত লাখের বেশি ফিলিস্তিনিকে তাদের বাড়ি-ঘর থেকে উচ্ছেদ করে তা দখল করে নেয়। সেই হিসেবে আগামীকাল ইসরাইলি আগ্রাসনের ৭০ বছর পূর্তি হবে।

একই সাথে বিক্ষোভ কর্মসূচীর আয়োজকরা এই কর্মসূচিতে তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদ জানানোর পরিকল্পনা করেন।

এখন ইসরাইলের দখলকৃত পশ্চিম তীরের শহর রামাল্লা ও হেব্রনেও যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদ করছে ফিলিস্তিনিরা।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ডিসেম্বের একতরফাভাবে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন। সেইসঙ্গে মার্কিন দূতাবাস তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে স্থানান্তরের ঘোষণা দেন।

তার সেই ঘোষণা অনুযায়ী আজ সোমবার মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তর করা হবে।

এ উপলক্ষে ইতোমধ্যে মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প ও জামাতা জারেদ কুশনারকে ইসরাইলে পাঠিয়েছেন তিনি।

এ ছাড়াও উপস্থিত রয়েছেন শীর্ষ মার্কিন কর্মকর্তারা, যদিও ইসরাইলের আহ্বানে সাড়া দেয়নি অন্যান্য দেশের কূটনীতিকরা। তাছাড়া ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রাম্পের দূতাবাস স্থানান্তরের ঘোষণা দেওয়ার কথা রয়েছে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::