শিরোনাম :
চিকিৎসক ও গণমাধ্যমকর্মীরা আগে করোনা ভ্যাকসিন পাবেন: স্বাস্থ্যের ডিজি বিদেশে করোনা আক্রান্ত নাগরিকদের দেশে ফিরতে দিতে চান না ট্রাম্প জ্যোতিষীর কথা শুনে নাম পাল্টেছেন যেসব তারকা বাংলাদেশে বন্যা ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ১ মিলিয়ন ইউরো প্রদান ইইউর যাদের বিপক্ষে ব্যাটিং করা রীতিমতো হিমশিম ছিল, জানালেন সাঙ্গাকারা সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতি মুক্ত দেশ গড়তেই আমাদের রাজনীতি: জিএম কাদের শাহজালাল মাজারে জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা! চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন না, প্রণব মুখার্জির শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের ৬৪ ভাগই ঢাকার সুশান্তের প্রেমিকা রিয়াসহ ৩ জনের ফোন ল্যাপটপ জব্দ
বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০, ০৭:১১ পূর্বাহ্ন

কসাই সংকট : দ্বিতীয় দিনেও চলছে কোরবানি

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: August 13, 2019 12:05 am | সম্পাদনা: August 13, 2019 12:05 am

ইসলামের বিধান অনুযায়ী, ঈদের দিন ছাড়াও জিলহজ্জ মাসের ১১ তারিখ (দ্বিতীয় দিন) এবং ১২ তারিখ (তৃতীয় দিন) দিনেও পশু জবাই করা যায়। যদিও বেশিরভাগ মানুষই ঈদের দিনটিকে পশু কোরবানির জন্য বেছে নেন, তারপরও কসাইয়ের অতিরিক্ত মজুরি আর কসাই সংকটের কারণে অনেকেই ঈদের দ্বিতীয় দিন কোরবানি দিতে বাধ্য হয়।

আজ মঙ্গলবার ঈদের দ্বিতীয় দিন রাজধানীর মগবাজার, মালিবাগ, চকবাজার, বকশিবাজার এলাকার অলিতেগলিতে কোরবানির চিত্র চোখে পড়ে। তবে ঈদের দিনের তুলনায় এর সংখ্যা কম।

ঈদের দ্বিতীয় দিন কোরবানি দেয়া মালিবাগ আবুল হোটেল এলাকার বাসিন্দা নাজিম আবরার জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমার প্রায় ৩ মণ ওজনের গরু ঈদের দিন সকালে কেটে দেয়ার জন্য ৮ হাজার টাকা চেয়েছে কসাই। কেউ ৭ হাজার বলেছে। তাই আমি এত টাকা খরচ না করে আজ কোরবানির সিদ্ধান্ত নেই।’

বংশাল এলাকার বাসিন্দা জামাল হায়দার বলেন, ‘অনেকটা ইচ্ছে করেই ঈদের পরের দিন কোরবানি করা। আমরা পুরান ঢাকার মানুষ ঈদের দিনটা নামাজ পড়ে বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে আনন্দের সময় কাটাই। দ্বিতীয় দিন পশু কোরবানি করে আনন্দ ধরে রাখি।’

সালাম সিকদার নামে নবাবপুর এলাকার এক বাসিন্দা বলেন, ‘গতকাল কসাই পাইনি। একজন আসবে আসবে বলেও আসেনি। তাই বাধ্য হয়েই আজ কোরবানি করছি।’

রাজধানীর গুলশানের নিকেতন এলাকার বাসিন্দা আব্দুস সামাদ। ৭ বছর ধরে থাকেন দক্ষিণ কোরিয়ায়। তাকে তার কোম্পানি ছুটি দিয়েছে সোমবার (১২ আগস্ট) থেকে। রাতেই মালিন্দো এয়ারলাইন্সে ঢাকায় পৌঁছান তিনি। নিজের উপার্জনের টাকায় দেয়া কোরবানি তাই চোখের সামনে করবেন। আর এই কারণে তার স্ত্রী ঈদের দিনের পরিবর্তে পরবর্তী দিন মঙ্গলবারকে বেছে নিয়েছেন তাদের কোরবানির পশুটি জবাইয়ের জন্য।’

এদিকে আজ যারা পশু কোরবানি দিচ্ছেন তাদের বর্জ্য অপসারণে সকাল থেকেই কাজ শুরু করেছে সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। তবে অনেক বাসিন্দাকেই নিজ দায়িত্বে বর্জ্য অপসারণ করতে দেখা গেছে। আর কোথাও আংশিক বর্জ্য থাকলে তা সিটি কর্পোরেশন থেকে অপসারণ করা হচ্ছে। তবে গতকালের মতো আজও সিটি কর্পোরেশনের পশু কোরবানির নির্ধারিত স্থানে কোনো পশু কোরবানির চিত্র দেখা যায়নি।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::