তারিখ: মঙ্গলবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং, ৮ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

টানা ৬ষ্ঠ বারের মতো উচ্ছেদ করা হয়েছে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টের তরঙ্গ রেস্তোঁরার পাশে নির্মিত অবৈধ স্থাপনা।ঝাউগাছ কেটে বাতিলকৃত প্লটে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগে গত একবছরে পাঁচবার উচ্ছেদ করা হয়েছিল। এরপর চারমাসের ব্যবধানে সেখানে ‘হাঁড়ি’ নামে একটি রেস্তোরাঁ তৈরী হয়। প্রায় এক কোটি টাকা মূল্যের জমিতে অবৈধভাবে এই স্থাপনা নির্মাণ হয়েছে।২৪ সেপ্টেম্বর (সোমবার) বিকালের দিকে সদর সহকারি কমিশনার (ভূমি) নাজিম উদ্দিনের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে সেই অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।এসময় জেলা প্রশাসনের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন শাখার দায়িত্বপ্রাপ্ত) শেখ সেলিম, আনসার ব্যাটালিয়ান ও পর্যটক সেবাই নিয়োজিত বীচকর্মীর ইনচার্জ মো. বেলাল উপস্থিত ছিলেন। একই সাথে বাতিলকৃত প্লটে স্থাপনা নির্মাণের দায়ে ‘হাঁড়ি’ রেস্তোরাঁর পাশে ‘ক্যাঙ্গারু’ ও ফুড ভিলেজ নামে দু’টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। সর্বমোট প্রায় দেড় কোটি টাকা মূল্যের জমি উদ্ধার করা হয়েছে।জানা গেছে, পাঁচবার উচ্ছেদের পরও মাত্র চার মাসের ব্যবধানে ওই জমিতে অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে গড়ে তোলা হয়েছে ‘হাঁড়ি রেস্তোঁরা’ নামের অভিজাত এক খাবার হোটেল। কেটে নেয়া হয়েছে ২০টিরও বেশি ঝাউগাছ। রীতিমতো প্রশাসনের সাথে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েই সেখানে প্রকাশ্যে দিনে-দুপুরে রেস্তোঁরা বর্ধিত কাজ করা হয়েছে। এতে প্রশাসনের কার্যক্রম নিয়েও নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয় সচেতন মানুষের মাঝে।সদর সহকারি কমিশনার (ভূমি) নাজিম উদ্দিন বলেন- টানা কয়েকবার উচ্ছেদ করা হয়েছিল সুগন্ধা পয়েন্টের পাশে অবৈধভাবে নিমির্ত স্থাপনা।প্রশাসনের বিভিন্ন ব্যস্ততার সুযোগে দখলকারীরা উচ্ছেদ করা জায়গায় ফের স্থাপনা নির্মাণ করে। সোমবার বিকালে ফের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

আপনার মতামত প্রদান করুন ::