শিরোনাম ::
উখিয়ায় মাদক প্রতিরোধ ও অপরাধ দমনে কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

কক্সবাজারে সপ্তাহব্যাপী ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব শুরু

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: মঙ্গলবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

এম.এ আজিজ রাসেল::

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী ভাষা ও সংস্কৃতি উৎসব। মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারী) বিকালে পাবলিক লাইব্রেরীর শহীদ দৌলত ময়দানে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাহিদ ইকবালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বিভীষণ কান্তি দাশ।

বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর সোমেশ্বর চক্রবর্তী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম, জেলা শিক্ষা অফিসার মো. নাছির উদ্দিন, কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের পরিচালক মংএ খিন, সাংস্কৃতিক এবং নাট্য ব্যক্তিত্ব এড. তাপস রক্ষিত ও কক্সবাজার প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. মুজিবুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ভাষা একটি দেশের সাংস্কৃতিক ও ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক। আর এই সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণে ভাষা হচ্ছে শক্তিশালী হাতিয়ার। মাতৃভাষার প্রচলন কেবল ভাষাগত বৈচিত্র্য, বহু ভাষাভিত্তিক শিক্ষাকেই উৎসাহিত করবে না, তা ভাষাগত ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের উন্নয়ন ও অনুধাবনের ক্ষেত্রে অবদান রাখবে।

বক্তারা আরও বলেন, বাঙালি জাতি নিজের রক্ত দিয়ে সারা বিশ্বকে শিখিয়েছে বাংলা ভাষা ভালোবাসার মন্ত্র। মাতৃভাষা দিবসের তাৎপর্য লুকিয়ে আছে দেশকে ভালোবাসা, দেশের মানুষকে, দেশের সংস্কৃতিকে ভালোবাসা, তার জীবনাচারকে ভালোবাসা আর এর জন্য গর্ববোধ করা।

জেলা প্রশাসন, কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, কক্সবাজারের যৌথ উদ্যোগে দেশের সংস্কৃতি ও ভাষা নিয়ে ৭ দিন ব্যাপী আয়োজিত উৎসবে রয়েছে নানা অনুষ্ঠানমালা। তাঁরমধ্যে ২২ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় আবৃত্তি, নৃত্য, একক সঙ্গীতানুষ্ঠান, চাকমা ও রাখাইন নৃত্য। ২৩ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় উল্টাকাব্য, রাখাইন-চাকমা নৃত্য ও একক সঙ্গীতানুষ্ঠান। ২৪ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় হাইল্যাগীত, আঞ্চলিক জারি গান ও একক সঙ্গীতানুষ্ঠান। ২৫ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় ভাষা চর্চা নিয়ে প্রবন্ধ পাঠ, মাতৃভাষায় কবিতা পাঠ, রাখাইন নৃত্য ও একক সঙ্গীতানুষ্ঠান। ২৬ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় আবৃত্তি, রাখাইন নৃত্য ও একক সঙ্গীতানুষ্ঠান। ২৭ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় উল্টাকাব্য, বান্ডা (দলীয়) ও একক সঙ্গীতানুষ্ঠান। ২৮ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৬টায় গাছা, আবৃত্তি, একক সঙ্গীতানুষ্ঠান ও সমাপনী অনুষ্ঠান।


আরো খবর: