তারিখ: শনিবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

Share:

পরকীয়া প্রেমের টানে ৫ সন্তানের জননীকে নিয়ে ভাগছে চার সন্তানের জনক।ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার (১৯আগষ্ট) কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও ইউনিয়নের মেহের ঘোনা গ্রামে।

এলাকাবাসী ও স্বামী আবুল ফয়েজ সূত্রে জানা গেছে, ঈদগাঁও ইউনিয়নের মেহের ঘোনার মৃত আলী আকবর ও ফাতেমা খাতুনের মেয়ে মালয়েশিয়া প্রবাসী আবুল ফয়েজের স্ত্রী পাঁচ সন্তানের জননী রাবেয়া বসরী (৩৫) এর সাথে ঈদগাঁও ইউনিয়নের ভোমরিয়া ঘোনার মৃত সোলেমানের ছেলে চার সন্তানের জনক আলী আহমদ (অলির) সাথে দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল।

স্বামী ফয়েজ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তি ও রাবেয়ার আত্বীয় স্বজনদের জানালে সে তার পরকীয়া প্রেমিককে দিয়ে তাকে জানে মেরে ফেলবো, মিথ্যা মামলায় জড়াব বলে হুমকি দেয় এবং থানায় সাধারণ ডায়েরিও করেছে বলে জানালেন রাবেয়ার মা ও ভাই। তার অপরাধ ও পরকীয়া প্রেমের কথা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সে ১৯ আগষ্ট বেলা ১২ টার দিকে নগদ টাকা, স্বর্ণ, মোবাইল ও জায়গাজমির মুল কাগজ পত্র নিয়ে উধাও হয়েছে এবং দীর্ঘ ৬ বছর ধরে মালয়েশিয়া থেকে পাঠানো সব টাকাও আত্মসাৎ করেছে বলে জানান রাবেয়ার মা, ভাই, ছেলে, স্বামী ও স্থানীয়রা।

এক সময়ে পরকীয়া প্রেমে আসক্ত প্রেমিক-প্রেমিকা দুজনেই বিয়েতে আবদ্ধ হবার সম্মতি প্র্রকাশ করলেও ঘটনাটি এলাকায় জানা জানি হলে একটি মহল সেখানে উপস্থিত হয়ে ওই দুজনকে বিয়ে না করতে বাধা দিয়ে মারপিট করে। পরে ১৯ আগষ্ট দুপুর বারটার দিকে সকলের অগোচরে পাঁচ সন্তানের ওই জননীকে নিয়ে চার সন্তানের জনক উধাও হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঈদগাঁও ইউনিয়নের(ওই এলাকার) মহিলা মেম্বার জনাতুল ফেরদাউস বলেন, তারা দুজনে বিয়ে করবেন বলে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঈদগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ আলম বলেন, এতবড় একটি ঘটনা ঘটার পরও উক্ত এলাকার ইউপি সদস্য আমাকে কিছুই জানাইনি।আমি এ বিষয়ে কিছুই জানিনা।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::

error: কপি করা নিষেধ !!