শিরোনাম :
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৫৩ অপরাহ্ন

উখিয়ায় হলদিয়ার রাস্তার বেহাল অবস্থা: সড়কতো নয় যেন পুকুর!

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ১৩, ২০১৮ ১০:৩২ পূর্বাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ১৩, ২০১৮ ১০:৩২ পূর্বাহ্ণ

কনক বড়ুয়া, উখিয়া(কক্সবাজার):
কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার ব্যাস্ততম এবং যানঝট পূর্ণ স্টেশন মরিচ্যার মধ্য বাজার হইতে হলদিয়া-পাতাবাড়ি সড়কের বেহাল অবস্থা। মেরামতের অভাবে মরিচ্যা মধ্য বাজার থেকে পাতাবাড়ি পর্যন্ত রাস্তার বিভিন্ন স্থানে খানা খন্দের কারণে সাধারণ মানুষের চলাচলে চরমদুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।

শুধু তাই নয়, দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের কচি ছাত্র-ছাত্রীদের। প্রতিদিনের মতো তৃপ্তি মতো ছাত্র-ছাত্রীরা স্কুলে যেতে পারছেনা বর্ষার শুরুতে। সকাল বেলায় বাড়ি থেকে স্কুল ইউনিফর্ম সাদা পরিধান করে আসলেও হলদিয়া রাস্তা পার হওয়ার পর নালা-নর্দমার আক্রমনে হয়ে যায় অস্বস্থিকর অবস্থা।

পাশাপাশি করুন পরিণতি সৃষ্টি হচ্ছে হলদিয়া রাস্তার দুপাশের ছোট-বড় ব্যাবসায়ীদের। সম্মুখীন হতে হচ্ছে মারাত্বক সমস্যার।

বর্ষার শুরুতে সামান্য বৃষ্টি হলেই প্রচন্ড জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় সড়কটিতে। এরই মধ্যে ভেঙে ছোটখাট কুয়ায় পরিণত হয়েছে সড়কটির বেশ কয়েকটি অংশ। ফলে এর বেশ কিছু অংশই এখন চলাচলের উপযোগী নয়। সড়কটি এখন যেন মরণফাঁদ। রাস্তার অনেক জায়গায় কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-খাটো গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় যানবাহনগুলোকে চলতে হচ্ছে হেলেদুলে। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন প্রায় হাজার এর উপরে রিকশা, বাস, ট্রাক, সিএনজি, টেম্পু, মোটরসাইকেল, নসিমন, অটোরিকশা, ভ্যান, সাইকেল, বিভিন্ন কোম্পানীর মালবাহী গাড়িসহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করে। রাস্তা ভাঙ্গার কারণে প্রায় প্রতিদিনই লোকজন বিভিন্ন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন। বিকল্প সড়ক না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন মরিচ্যা বাজারেরসহ পার্শবর্তী উপজেলা থেকে আগতযাত্রীরা চলাচল করছেন। অতিদ্রুত রাস্তাটি পুনর্র্নিমাণ বা সংস্কার করার দাবি এলাকাবাসীর।

উখিয়া উপজেলার সহ পাশ্ববর্তী এলাকা থেকে মরিচ্যা বাজারে প্রবেশের ব্যস্ততম সড়ক হচ্ছে এই সড়ক। রাস্তার পাশে যানবাহন দাঁড়িয়ে থাকা, অননুমোদিত ও অতিরিক্ত রিক্সা চলাচলের কারণে বাজারের বেশিরভাগ সময় যানজট লেগে থাকে।

সরেজমিন দেখা গেছে, মরিচ্যা বাজার থেকে পাতাবাড়ি পর্যন্ত রাস্তায় বেশ কয়েকটি বড় বড় গর্ত হয়ে পুকুরে রূপ নিয়েছে। বৃষ্টি হলেই গর্তসহ পুরো সড়কটির তলিয়ে যায়। পানি জমে থাকলে অনেকেই গর্তের গভীরতা বুঝে উঠতে পারেন না। ফলে হরহামেশাই এসব গর্তে পড়ে নাস্তানাবুদ হতে হচ্ছে গাড়ি চালকদের। যানবাহন চলাচলও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।রাস্তার খানাখন্দ কারণে যানবাহন চলছে ঝিমিয়ে। ফলে যানজট তীব্র আকার ধারণ করছে। বর্ষার বৃষ্টির কারণে শতাধিক বড় বড় গর্ত পানিতে ভরে গেছে। রাস্তা এবং গর্তও পানি সমান হওয়ায় কোনটা গর্ত আর কোনটা রাস্তা বুঝার উপায় নেই।

এরই মধ্যে রাস্তাটি সংস্কারের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান-মেম্বার সহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বরাবর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, ব্যবসায়ীসহ এলাকাবাসীরা। ####

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::