শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৪৮ অপরাহ্ন

উখিয়ার ব্রিজের মুখ ভরাট করে বহুতল ভবন নির্মাণ

প্রতিবেদকের নাম::

প্রকাশ: মে ১০, ২০১৮ ১১:২৮ অপরাহ্ণ | সম্পাদনা: মে ১০, ২০১৮ ১১:২৮ অপরাহ্ণ

উখিয়ার ঐতিহ্যবাহী জোয়ার ভাটার রেজুখালের ব্রিজের মুখ ভরাট করে সম্পূর্ণ অবৈধ উপায়ে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। ফলে বর্ষা মৌসুমে পানি প্রবাহ বন্ধ হয়ে হাজার হাজার একর ফসলি জমি,বাড়ী-ভিটা প্লাবিত হওয়ার আশংখায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় গ্রামবাসি বৃহস্পতিবার সকালে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট একটি লিখিত অভিযোগ করেছে।

ঘটনাস্থল কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের রাজাপালং ইউনিয়নস্থ হিজলিয়া ঘুরে প্রত্যক্ষদর্শী গ্রামবাসির সাথে কথা বলে জানা যায়, বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের ওয়ালিডং পাহাড়ের পাদদেশ থেকে সৃষ্ট এ রেজুখালটি রাজাপালং, রতœাপালং, রামু উপজেলার একাংশ হয়ে জালিয়াপালং ও হলদিয়াপালং ইউনিয়নের মধ্যদিয়ে সরাসরি বঙ্গোপসাগরের সাথে সংযুক্ত হওয়ায় এ খালে নিয়মিত জোয়ার ভাটা হয়ে আসছে যুগ যুগ ধরে।

রাজাপালং ইউনিয়নের প্রত্যক্ষদর্শী মোঃ ফয়েজুল ইসলাম, হাজী জাহাঙ্গীর আলম ও মোঃ গিয়াস উদ্দিন সহ একাধিক গ্রামবাসি অভিযোগ করে জানান, খয়রাতি পাড়া গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে আহমদ উল্লাহ খালের পাশর্^স্থ তার জোত জমি দাবী করে হিজলিয়া ব্রিজের নি¤œাংশ ভরাট করে অবৈধ ভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ করছে। তারা আরো জানান, রেজুখালের পানি প্রবাহ বন্ধ করে খালের উপর অবৈধ ভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হলে বর্ষা মৌসুমে খয়রাতি পাড়া, দুছড়ি, হাজিরপাড়া, সাদৃকাটা, মৌলভী পাড়া, আলিমুরা, হিজলিয়া, উত্তর পুকুরিয়া, দক্ষিণ পুকুরিয়া, জাদিমুরাসহ ১০ গ্রামের হাজার একরেরও অধিক ফসলি জমি, শত শত বাড়ী-ভিটাসহ বিভিন্ন স্থাপনা প্লাবিত হয়ে পড়বে। এমনকি কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের কোটবাজার থেকে জাদিমুরা পর্যন্ত পানিতে তলিয়ে যাওয়ার আশংখা রয়েছে। ফলে যানবাহন চলাচল ভোগান্তির পাশাপাশি ১০ গ্রামের অসংখ্য মানুষকে পোহাতে হবে নানা দুর্ভোগ।

অভিযুক্ত আহমদ উল্লাহ সাথে কথা বলার জন্য একাধিকবার তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে সাংবাদিকদের জানান, স্থানীয় গ্রামবাসি এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ করেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইকরামূল ছিদ্দিককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কক্সবাজার পোস্ট.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কক্সবাজার পোস্ট সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
এই জাতীয় আরো খবর::