তারিখ: মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০১৯ ইং, ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share:

নিজস্ব প্রতিবেদক,চকরিয়া::

চকরিয়া উপজেলার প্রাচীনতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সপ্তাহে দু’দিন চলিত অস্থায়ী গরুর হাট নিয়ে মহল বিশেষের “অপ-প্রচার এবং অসৎ উদ্দেশ্যমূলক” বলে উল্লেখ করে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একটি বিবৃতি দিয়েছেন। এখানে বিদ্যালয়ের মাঠে গরুর হাট বসানোর কথাটি একেবারে বানোয়াট। মুলত হাটটি বসে বিদ্যালয়ের মাঠের পশ্চিমে ইলিশিয়া বাজারে গরু-ছাগল বিক্রির জন্য নির্ধারিত পয়েন্টে। সুতারাং এটি বিদ্যালয়ের মাঠ বলা যাবেনা।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, এলাকার জনস্বার্থে ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সপ্তাহের রবি ও বৃহষ্পতিবার দু’দিন অস্থায়ী গরুর হাট চলে আসছে। গরুর হাট বসার কারণে বিদ্যালয়ের পড়া-লেখার পরিবেশ এবং ছাত্র-ছাত্রীদের খেলা-ধূলার কোন ধরণের বিঘ্ন হচ্ছেনা। যার প্রমাণ অনুষ্ঠিত জেএসসি পরীক্ষায় অত্র বিদ্যালয়ের ০৬ জন ছাত্র-ছাত্রী সরকারী বৃত্তি লাভ করেছে, তন্মধ্যে ৪ জন ট্যালেন্টপুল পেয়েছে।

তাছাড়া গত গ্রীস্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ইলিশিয়া জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় হতে অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীরা চট্টগ্রাম বিভাগে চ্যাম্পিয়ণশীপ অর্জনে সক্ষম হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে অস্থায়ী গরুর হাটটি বর্তমান মাঠ হতে সরিয়ে স্থানীয় পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়ন পরিষদ ও ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাঠে স্থানান্তর করার প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত হলে ইতোপুর্বে এলাকার স্থানীয় সর্বস্তরের জনসাধারণের পক্ষে ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুশ শুক্কুর বাদি হয়ে মহামান্য হাইকোর্টে দায়েরকৃত একটি রিট মামলার (মামলা নং-৩৩৪৬/ ২০১৭) শুনানী শেষে আদালত জনস্বার্থে বাজারটি বর্তমান মাঠ থেকে না-সরিয়ে জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের পশ্চিমে বহাল রাখার নির্দেশ দেয়া হয়।

জমিলা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় পশ্চিম বড় ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বাবলা এবং বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শহিদ উল্লাহসহ এলাকার বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের অভিমত এলাকার মহল বিশেষ কোন অসৎ উদ্দেশ্যে এ বিষয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির লক্ষে দেশ-জাতির বিবেক সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে অপ-প্রচার চালাচ্ছে।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::