তারিখ: মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০১৯ ইং, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

Share:

এস,এম,জুয়েল আলীকদম :;
থোয়াইচিং হেডম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি আলীকদম উপজেলার ২নং চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের অন্তর্গত ৭নং ওয়ার্ডে (মাংগু মৌজায়) অবস্থিত। উপজেলা সদর থেকে দুরত্ব আনুমানিক ১০ কিলোমিটার।

বিদ্যালয়টি দুর্গম পাহাড়ি পরিবেশের মধ্যে ১৯৮৮ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। বর্তমানে বিদ্যালিয়টিতে চারজন শিক্ষক কর্মরত আছেন। একজন সাময়িক বরখাস্ত। এ বিদ্যালয় সন্নিহিত এলাকাটি উন্নয়নের ছোঁয়া বঞ্চিত। রাস্তাঘাট দুর্গম ও বন্ধুর।

উপজেলা সদর থেকে বিদ্যালয়ের যাওয়ার রাস্তাটির অন্তত তিন কিলোমিটার রাস্তা মাটির। ফলে বর্ষা মৌসুমে কর্দমাক্ত মাটি পিচ্ছিল থাকার কারণে বিদ্যালয়গামী ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের দুর্ভোগের অন্ত থাকে না।

পাশাপাশি বিদ্যালয় পার্শ্ববর্তী ২১টি পাড়াজুড়ে অন্তত ৫ হাজার মানুষের বসবাস। এরমধ্যে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী মুরুং জনসংখ্যাই বেশী। উন্নয়নের মূলস্রোত থেকে পিছিয়ে থাকা এ নৃ-জনগোষ্ঠী মূলতঃ জুমচাষ নির্ভর জীবিকা নির্বাহ করেন।

গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বিদ্যালয় পার্শ্ববর্তী চৈক্ষ্যং খালের ওপর গার্ডার ব্রিজ নির্মাণে প্রাক্কালন থেকে শুরু করে বরাদ্দ অনুমোদন হয়। ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয় থেকে প্রায় অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে ব্রিজটি নির্মাণ হওয়ার কথা। পরিতাপের বিষয় যে, চাঁদাবাজদের দৌরাত্মের কারণে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজটি করতে অনীহা প্রকাশ করলে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ অর্থ ফেরত নিয়ে অন্য জায়গায় ব্রিজটি নির্মাণ করে। এতে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের ক্ষেত্রে স্থায়ী ক্ষতির শিকার হন এলাকাবাসী।

উন্নয়নের মূলস্রোত থেকে পিছিয়ে থাকা এ জনগোষ্ঠী বর্ষা মৌসুমে কর্দমাক্ত পিচ্ছিল মাটির রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হিমশিম খান। তাদের উৎপাদিত বিভিন্ন কৃষিপণ্য বাজারজাতে পড়েন বিপাকে। দুর্গম পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়েই তাদেরকে জুমের উৎপাদিত কৃষিপণ্য আলীকদম বাজার ও পান বাজারে নিয়ে যেতে হয়। যোগাযোগ্য ব্যবস্থা কারণে কৃষিপণ্যের ন্যায্য মূল্যও পান না জুমিয়া পরিবারগুলো।

ক্ষুদ্র নৃ-জনগোষ্ঠীর মুরুং জনগণকে উন্নয়নের মূল কাতারে নিয়ে আসতে প্রয়োজন বিদ্যালয় সন্নিহিত পাড়াগুলোর আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নতি সাধন। আলীকদম উপজেলার দুর্গম মাংগু মৌজায় অবস্থিত অত্র থোয়াইচিং হেডম্যান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সন্নিহিত এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়নে সদাশয় সরকার, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সচেতন মহলের কৃপা দৃষ্টি কামনা করছি।

Share:

আপনার মতামত প্রদান করুন ::