শিরোনাম ::
একসঙ্গে ৪ সন্তান জন্ম দিলেন মহেশখালীর এক গৃহবধূ! বান্দরবানের দুর্গম অঞ্চলে ঝরে পড়া শিশুদের জন্য উদ্বোধন শিশু প্রতিভা বিকাশ কেন্দ্রের বান্দরবান দুই শতাধিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প উখিয়ায় পালস’র উদ্যোগে বিশ্ব শান্তি দিবস পালিত সীমান্তে গুলির শব্দ থামছে না উখিয়ায় প্রশাসনের অভিযানে ৩টি ড্রেজার মেশিন ও ২টি বন্দুকসহ অস্ত্র উদ্ধার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো খুন মুক্তি কক্সবাজার-এর উদ্যোগে ব্যবসায়ী ও উপকারভোগীদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত পালস-এর উদ্যোগে “বর্ণবাদ-শান্তি ও সম্প্রীতির অন্তরায়” বিষয়ক বির্তক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত জেনারেল হসপিটালে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসার অভিযোগ!
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:০৪ পূর্বাহ্ন
নোটিশ::
কক্সবাজার পোস্ট ডটকমে আপনাকে স্বাগতম..

অনলাইন জুয়ায় জড়িত থাকার অভিযোগে কক্সবাজার থেকে আটক ৯

প্রতিবেদকের নাম:
আপডেট: রবিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২১

রাশিয়া থেকে পরিচালিত একটি বেটিং ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইন জুয়ায় জড়িত থাকার অভিযোগে কক্সবাজার থেকে ৯ ব্যাক্তিকে আটক করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

আজ রোববার দুপুরে সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি কামরুল আহসান এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। আটককৃতরা হলেন স্বপন মাহমুদ, নাজমুল হক, আসলাম উদ্দিন, মুরশিদ লিপু, শিশির মোল্লা, মো. সাদিক, মাসুদ রানা, মাহফুজুর রহমান ও তাঁর স্ত্রী মনিরা আক্তার। তাঁদের বয়স ৩৫ থেকে ২০ বছরের মধ্যে।

সিআইডি জানায়, আটকৃতরা দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকার একটি চক্রের অংশ। কক্সবাজারসহ বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে ওই ওয়েবসাইটের এজেন্ট রয়েছে। তাদের মাধ্যমে ওই অ্যাপসে যে কেউ লগিং অ্যাকাউন্ট খোলার পর তাদের একটি ওয়ালেট দেওয়া হয়। তারপর সেই ওয়ালেটে টাকা রিচার্জ করে বেটিং সাইটে দেওয়া মোবাইল ব্যাংকিংয়ের নম্বরে টাকা পাঠানোর পর এই ই-ওয়ালেটে টাকা যুক্ত হয়। ন্যূনতম ১ হাজার টাকা এই ই-ওয়ালেটে প্রবেশ করাতে হয়।

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে কর্মরত অসাধু ব্যক্তিদের মাধ্যমে বিজনেস সিম সংগ্রহ ও ভাড়া করে এই অবৈধ লেনদেন হচ্ছে বলে জানায় সিআইডি।

সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির পক্ষ থেকে আরো বলা বলা হয়, চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৫০ জন মোবাইল ব্যাংকিং এজেন্টের তথ্য পাওয়া গেছে, যে নম্বরগুলো থেকে অনলাইন জুয়ার টাকা লেনদেন হচ্ছে। এই নম্বরগুলোর মধ্যে অন্তত ১৫টিতে দিনে ১০ লাখের ওপরে টাকা লেনদেন করছে জুয়াড়ি চক্র। পরে এই টাকা হুন্ডি বা অবৈধ ব্যাংকিং চ্যানেলে পাচার হচ্ছে বলে ধারণা সিআইডির।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে কামরুল আহসান বলেন, ‘একটি জেলায় ৫০ জন এজেন্টের তথ্য পাওয়া গেছে। সারা দেশের চিত্র এখনো আমরা পাইনি। এ নিয়ে কাজ চলছে। দিনে একটি বেটিং সাইটে এক থেকে দেড় লাখ ব্যক্তি জুয়ায় অংশ নেন।’


আরো খবর: